বাতাস থেকে হিরা মিলবে!

0
59
diamond
হিরা
diamond
হিরা

প্রেয়সিকে একটি হিরার আঙটি বা কানের দুল কিনে দিতে না পারার মতো দুঃখ মনে হয় শেষ হতে যাচ্ছে। ডাচ শিল্পী ডান রুজগার্ডের এক আবিষ্কার সফল হলে হিরা হয়ে উঠবে সহজলভ্য। ভ্যাকুয়াম ক্লিনারে বাতাস থেকে কার্বন নিয়ে তা থেকে তৈরি করা হবে নানা আকারের হিরা। এতে কমে আসবে দাম। তবে তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরও কয়েকটা বছর। তার আগে পর্যন্ত স্বপ্ন বিলাস হয়েই থাকবে এটি। খবর ২৪ ঘন্টা ও সিএনএনের।

প্রযুক্তির বিষ্ময় চিনে চলছে রুজগার্ডের স্বপ্ন রূপান্তরের চেষ্টা। গত বছর চিন সরকার রুজগার্ডের সাথে এ বিষয়ে একটি চুক্তি সই করেছেন। চুক্তি অনুসারে বেজিংয়ের পার্কে বিশাল আকারের ভ্যাকুয়াম টাওয়ার বসানো হবে। তা দিয়ে পরিষ্কার হবে শহর জুড়ে থাকা ধোঁয়া ও দূষণের আস্তরন। বাড়তি পাওনা হবে মূল্যবান হিরা।

বেজিং বিশ্বের দূষিত নগরগুলোর অন্যতম। শিল্প দূষণে ভারী হয়ে উঠেছে এ শহরের বাতাস। ধোঁয়া ও ধূলির চাদর ভেদ করে সূর্যের আলোও বুঝি নিচে আসতে পারে না। এই শহরে স্বচ্ছ-সতেজ বাতাস দেওয়ার স্বপ্ন নিয়েউ বসানো হচ্ছে ভ্যাকুয়ার টাওয়ার। ডিজাইন অনুসারে এ টাওয়ারে আইওনিক ফিল্টার থাকবে। এটি দূষণ ও ধোঁয়ার কণা  টেনে নেবে। বিশালাকার যন্ত্রে পরিশোধিত হয়ে বের হয়ে আসবে বিশুদ্ধ বাতাস। অন্যদিকে দূষিত বাতাসের কার্বণ কণাকে হিরায় রূপান্তরিত করা হবে।