‘খতনার’ ভয়ে পালাচ্ছেন পুরুষরা

0
54
khatna
ফাইল ছবি
khatna
ফাইল ছবি

আগস্ট মাস মানেই কেনিয়ার বুকুসু সম্প্রদায়ের কাছে খতনার মৌসুম। মৌসুমটা তারা উৎসব করে, নাচে-গানে, বিয়ারে উদযাপন করে। কিন্তু অন্য সম্প্রদায়ের লোকদের জন্য মৌসুমটি আতঙ্কের।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, মৌসুম শুরুর পর এখন পর্যন্ত অন্য সম্প্রদায়ের ১২ পুরুষকে ধরে জোর করে খতনা করিয়ে দিয়েছেন বুকুসুরা৷

এক খবরে শুক্রবার জার্মানভিত্তিক বার্তাসংস্থা ডিডব্লিউ জানিয়েছে, জোর পূর্বক এমন খতনা থেকে বাঁচতে অনেকে এলাকা ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন কিংবা পুলিশের কাছে আশ্রয় নিয়েছেন।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, শুধু খতনা নয়, উদ্বেগের কারণ আরও রয়েছে। বুকুসু সম্প্রদায় খতনায় ব্যবহার করেন সনাতন পদ্ধতি। অর্থাৎ কোনো রকম ব্যথানাশক ব্যবহার না করে ছুরি দিয়ে কেটে নেওয়া হয় পুরুষাঙ্গের সামনের অংশের উপরকার চামড়া।

দিন কয়েক আগে এই কাজ করতে গিয়ে এক খতনাকারক ১৩ বছর বয়সি এক কিশোরের পুরুষাঙ্গই কেটে ফেলেছেন৷ স্থানীয় এক পত্রিকায় এই খবর প্রকাশের পর সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে আতঙ্ক আরও বেড়ে গেছে।

এতে আরও বলো হয়, বুকুস সম্প্রদায়ের মানুষরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে খতনা করা হয়নি এমন তুরকানা সম্প্রদায়ের পুরুষদের খুঁজে বের করছে এবং তাদের খতনা করে দিচ্ছেন।

এদিকে পুলিশ বিষয়টি জানলেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে জোর পূর্বক খতনার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা ওকুমু।

এস রহমান/