একদিনেই লেনদেন কমেছে ২৮%

0
47
DSE-CSE
ডিএসই ও সিএসই’র লোগো

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) একদিনের ব্যবধানে লেনদেন কমেছে ২৭ দশমিক ৬১ শতাংশ। বুধবার আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে ১৮৮ কোটি টাকার। এদিন লেনদেনের শুরুতে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী ধারা থাকলেও পরে সূচক কমতে থাকে। লেনদেনের শেষ পর্যন্ত ডিএসইতে সূচক বেড়েছে সামান্য।

বিশ্লেষকদের মতে, পুঁজিবাজারে ধারাবাহিক ঊর্ধ্বমুখীর পরে এখন মূল্য সংশোধনের কারণেই লেনদেন কমেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বুধবার ডিএসইতে মোট ৪৯৩ কোটি ২১ লাখ টাকা শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৬৮১ কোটি টাকার শেয়ার। ডিএসইর প্রধান বা ডিএসইএক্স সূচক শূন্য দশমিক ৭১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৫২৭ পয়েন্টে। আর ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৫০  পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট বেড়ে  দাঁড়িয়েছে এক হাজার  ৬৯৩ পয়েন্টে।

এদিন ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নিয়েছে ২৯৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২০টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১২৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৯টির।

বুধবার ডিএসইতে টাকার অঙ্কে লেনদেনে শীর্ষ কোম্পানিগুলো হচ্ছে- এমজেএলবিডি, গ্রামীণ ফোন, স্কয়ার ফার্মা, অ্যাক্টিভ ফাইন কেমিক্যালস লিমিটেড, হা-ওয়েল টেক্সটাইল লিমিটেড, অ্যাপলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেড, বেক্সিমকো, এসিআই, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট এবং সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই)  সূচকের মিশ্র অবস্থায় লেনদেন শেষ হয়েছে। বুধবার সিএসই সার্বিক সূচক   ১৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৩ হাজার ৯৭০ পয়েন্টে। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৮৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৪টির, কমেছে ৭৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির।

অর্থসূচক/এসএ/