পরিশোধিত মূলধন নিয়ে হুঁশিয়ারি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের

0
119
Bangladesh Bank
বাংলাদেশ ব্যাংক

ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পরিশোধিত মূলধন পূরণের জন্য জোর তাগিদ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে এ মূলধন পূরণ করতে ব্যর্থ হলে কঠোর ব্যবস্থাও নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

Bangladesh Bank
বাংলাদেশ ব্যাংক

মঙ্গলবার আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের সাথে বাংলাদেশ ব্যাংকের আলোচনা সভায় এমন কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ড. আতিউর রহমান। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

নতুন অনুমোদন পাওয়া ২টিসহ দেশের মোট ৩৩টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে দেড় বছর সুযোগ দেওয়ার পরও ৩টি প্রতিষ্ঠান তাদের পরিশোধিত মূলধন পূরণ করতে পারেনি। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- মাইডাস ফাইন্যান্স, বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি (বিআইএফসি) এবং জিএসপি ফাইন্যান্স।

এছাড়া কমপ্লায়ান্সসহ বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ইতোমধ্যে গত ২ মাসে ৩টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে বড় ধরনের জরিমানা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডেপুটি গভর্নর এস.কে.সুর চৌধুরী।

বৈঠক শেষে এস.কে.সুর চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, প্রতি ৩মাস পরপর আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে এ ধরনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে প্রতিষ্ঠানগুলো কার্যক্রম, সমস্যা ও সমাধানের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এবারের আলোচনা সভায় ডকুমেন্টেশন ফি পুনর্বিবেচনা, ঋণ বিতরণ পরবর্তী সময়ে গ্রাহকদের ফিডব্যাক সংগ্রহ, শাখা স্থাপনের নীতিমালা শিথিলকরণ, লিজ ফাইন্যান্সিংয়ের মাধ্যমে বিলাসবহুল গাড়ি ক্রয় সংক্রান্ত নীতিমালা সংশোধন, শরিয়াহভিত্তিক এসএমই পুনঃঅর্থায়ন স্কিম সুবিধা চালু ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ডকুমেন্টেশন ফি আদায়ে গ্রাহকদের হয়রানি না করেই চার্জ আদায় করতে বলা হয়েছে। ঋণগ্রহীতাদের ফিডব্যাকের প্রতিবেদন ৩ মাসের পরিবর্তে বছর শেষে দাখিল করলেই হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। শাখা স্থাপনের বিষয়ে ১ মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এসএই/এমই/