রোজার কারণে বেড়েছে মূল্যস্ফীতি

0
81
মুদি দোকান

মুদি দোকানপবিত্র রমজান ও ঈদের কারণে খাদ্য সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় জুলাই মাসে মূল্যস্ফীতি বেড়েছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, রমজান মাস ঈদের মাস হওয়ার ফলে পণ্যের দাম একটু বাড়বেই। এই মাসে মানুষ মনের আনন্দে খরচ করে যার কারণে নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যায়। ’
তিনি জানান, রমজান মাসে মুড়ি, মাছ, মাংস, ব্রয়লার মুরগি, শাক-সবজি, ফল, মসলা, দুধ জাতীয় দ্রব্য এবং অন্যান্য খাদ্য সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধির কারণে জুলাই মাসে মূল্যস্ফীতি কিছুটা বেড়েছে।

মুস্তফা কামাল জানান, জুলাই মাসে পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে সার্বিক মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৭ দশমিক ০৪ ভাগ; যা জুন মাসে ছিল ৬ দশমিক ৯৭ ভাগ।

তিনি জানান, খাদ্য ও খাদ্য বহির্ভূত উপ-খাতে মূল্যস্ফীতি হয়েছে যথাক্রমে ৭ দশমিক ৯৪ ও ৫ দশমিক ৭১ ভাগ; যা জুন মাসে ছিল ৮ ভাগ ও ৫ দশমিক ৪৫ ভাগ।

তবে গ্রামীণ পর্যায়ে সাধারণ মূল্যস্ফীতি কমেছে। পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে জুলাই মাসে মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৬ দশমিক ৯৩ ভাগ; যা জুন মাসে ছিল ৬ দশমিক ৭৩ ভাগ।

তবে গ্রামীণ পর্যায়ে খাদ্য ও খাদ্য বহির্ভূত পণ্যে মূল্যস্ফীতি বেড়েছে। জুলাই মাসে খাদ্য ও খাদ্য বহির্ভূত উপ-খাতে মূল্যস্ফীতি ছিল ৭ দশমিক ৭৮ ভাগ ও ৫ দশমিক ৪৩ ভাগ; যা জুন মাসে ছিল ৭ দশমিক ৬৪ ভাগ ও ৫ দশমিক ১২ ভাগ।

অপরদিকে শহর পর্যায়ে সাধারণ মূল্যস্ফীতি পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে কমে দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ২৪ ভাগ; যা জুন মাসে ছিল ৭ দশমিক ৪২ ভাগ।

জুলাই মাসে খাদ্য ও খাদ্য বহির্ভূত উপ-খাতে মূল্যস্ফীতি হয়েছে যথাক্রমে ৮ দশমিক ৩১ ও ৬ দশমিক ১০ ভাগ; যা জুন মাসে ছিল ৮ দশমিক ৮৭ ও ৫ দশমিক ৯১ ভাগ।