শাহরুখের সঙ্গে উর্দি পরে নাচায় বিতর্ক

0
271
cm-srk-prog
‘জয় হে’ অনুষ্ঠানে শাহরুখের সঙ্গে উর্দি পরে নাচছে এক পুলিশকর্মী- ফাইল ছবি
cm-srk-prog
‘জয় হে’ অনুষ্ঠানে শাহরুখের সঙ্গে উর্দি পরে নাচছে এক পুলিশকর্মী

কলকাতা পুলিশের আয়োজনে জমজমাট ‘জয় হে’ অনুষ্ঠানে শাহরুখের সঙ্গে উর্দি পরে এক পুলিশকর্মী নাচায় বিতর্ক শুরু হয়েছে। মাত্র ২ বছর আগেও জলপাইগুড়ির এক অনুষ্ঠানে কৌতুকশিল্পীর অনুরোধে উর্দি পরে নাচায় শো-কজ করা হয়েছিল এক মহিলা পুলিশ কর্মীকে।

শনিবারের সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠানের সূচনা করেছিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীই। তিনি বলেন, পুলিশ সারা বছর রোদে পুড়ে, জলে ভিজে কাজ করে। উৎসবে আনন্দ করতে পারে না। তাই তাদের ও তাদের পরিবারের জন্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি।

আজ রোববার ভারতের এক বার্তা সংস্থা এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দর্শকাসনের সামনের সারিতে বসে আছেন মুখ্যমন্ত্রী, পুলিশ কমিশনার-সহ লালবাজারের বড় কর্তারা। মঞ্চে ‘জব তক হ্যায় জান’-এর সুরে নাচছেন শাহরুখ খান। আর তার নৃত্যসঙ্গিনী কলকাতা পুলিশের উর্দি-টুপি পরা এক কর্মী!

ফিল্মি নাচে যেমনটি হয়, ঠিক তেমন করেই উর্দি পরা ওই পুলিশকর্মী কখনও জড়িয়ে ধরছেন শাহরুখের কোমর, পা তুলে দিচ্ছেন নায়কের কোলে। শাহরুখও তাকে সিনেমার নায়িকার মতোই পাঁজাকোলা করে কোলে তুলে তালে তালে চক্কর কাটছেন। আর চোখের সামনে এমন দৃশ্য দেখে উল্লাসে ফেটে পড়ছে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়াম!

মহিলা সহকর্মীকে দেখে উদ্বুদ্ধ হয়ে অন্য ২ পুলিশকর্মীও উর্দি পরেই মঞ্চে উঠে একটু কোমর দুলিয়ে নিলেন!

সেই অনুষ্ঠানেই উর্দি পরা তরুণী পুলিশকর্মীর এমন নাচ দেখে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

তারা বলছেন, ওই তরুণী শাহরুখের সঙ্গে নাচতেই পারেন। কিন্তু পুলিশের উর্দি পরে প্রকাশ্যে এমন নাচগান করা যায় কি না, প্রশ্নটা সেখানেই। যদিও কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার রাজীব মিশ্র বলেছেন, এটা সামাজিক অনুষ্ঠান। তাই বিষয়টিকে সেই প্রেক্ষিতেই দেখা উচিত।

তবে পুলিশকর্তারা যা-ই বলুন, বাহিনীর অন্দরেই বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

পুলিশের ‘রুল বুক’ বলছে, উর্দির নিজস্ব একটি সম্ভ্রম রয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্মী যে শৃঙ্খলাবদ্ধ বাহিনীর  সদস্য, তার প্রমাণই হল ওই উর্দি। কোথায় উর্দি পরে যাওয়া যায়, কোথায় যায় না তা-ও নির্দিষ্ট করা রয়েছে ‘রুল বুকে’। নিয়ম অনুযায়ী, উর্দি পরে পারিবারিক কাজও করা যায় না।

বিষয়টি নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে লালবাজারের অন্দরেও। পুলিশের একাংশই বলছেন, উর্দি পরে এমন কাজ উচিত নয়। কিন্তু এমন অনুষ্ঠানে উর্দি পরে যেতে হবে কেন, প্রশ্নটা সেখানেই। মুম্বাই পুলিশেরও এমন অনুষ্ঠান হয়। কিন্তু সেখানে উর্দি পরে যাওয়া বাধ্যতামূলক নয়।

প্রাক্তন মুখ্যসচিব অর্ধেন্দু সেনে বলেন, কী ধরনের অনুষ্ঠান হবে, সেটা নীতিনির্ধারকেরা ঠিক করেন। যেমন মেজাজ তৈরি হয়েছে, তেমন ভাবেই অনুষ্ঠান এগিয়েছে। বেচারি পুলিশকর্মীকে দোষ দিয়ে কী লাভ!

এএসএ/