ফের লজ্জার হার ভারতের

0
64
england vs india
ইংল্যান্ডের উদযাপন
বৃষ্টিও লজ্জা থেকে বাঁচাতে পারল না ভারতকে। ম্যানচেস্টার টেস্টের দ্বিতীয় দিনের প্রায় দুই সেশনের খেলা নষ্ট হওয়ার পরও ইংল্যান্ডের কাছে মাত্র ৩ দিনেই হেরেছে ভারত। প্রথম ইনিংসে ১৫২ রানে অলআউটের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ১৬১ রানের বেশি করতে না পারায় ইনিংস ও ৫৪ রানের ব্যবধানে হারের লজ্জায় ডুবল ভারত।

england vs india
ইংল্যান্ডের উদযাপন

এই জয়ে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। ২৮ বছর পর লর্ডস টেস্ট জিতে ভারত এগিয়ে গেলেও পরের টেস্টে তারা ২৬৬ রানে ইংল্যান্ডের কাছে পরাজিত হয়।

ধোনির দল প্রথম ইনিংসে মাত্র ৪৬.৪ ওভার ব্যাট করতে সক্ষম হয়। দ্বিতীয় ইনিংসেও প্রথম ইনিংসের ধারা অব্যাহত থাকে। এই ইনিংসে মাত্র ৪৩ ওভারে ১৬১ রান করতে সমর্থ হয় ভারত।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্রড বল না করলেও অ্যান্ডারসন ও মইন মিলে ভারতীয় ব্যাটিংকে ধস নামান। তৃতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডকে জিতিয়েছিলেন মইন। এ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসেও ৪ উইকেট পান তিনি।

ইংল্যান্ডের রান যখন ৬ উইকেটে ২৩৭, তখনই বৃষ্টি নামে। বৃষ্টি নামার আগ পর্যন্ত ভারতের প্রথম ইনিংসের তুলনায় ৮৫ রানে এগিয়ে ছিল তারা। ৪৮ রানে রুট ও ২২ রান নিয়ে ব্যাট করছিলেন জশ বাটলার। বৃষ্টির ফলে দ্বিতীয় দিনে আর ব্যাট করতে পারেননি তারা। গতকাল সপ্তম উইকেট জুটিতে সর্বমোট ১৩৪ রান তুলে বিচ্ছিন্ন হন রুট। তিনি করেন ৭৭ রান। বাটলার ৭০ রান করে আউট হন। ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন ওকস। ইংল্যান্ডকে আবার ব্যাটিংয়ে নামাতে অন্তত ২১৫ রান করতে হতো ভারত।

ভারতের প্রথম ৩ ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কে পৌঁছালেও তাদের কেউই বিশের ঘরে যেতে পারেননি। বিরাট কোহলি (৭) আর অজিঙ্কা রাহানে (১) দুই অঙ্কেই যেতে পারেননি।

হতাশ করেন ধোনি (২৭) আর রবীন্দ্র জাদেজাও। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ৬৬ রানে ৬ উইকেট হারানো ভারতকে আরো বড় লজ্জার হাত থেকে বাঁচান রবিচন্দ্রন অশ্বিন। সিরিজে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমে ৪৬ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

চা-বিরতির পর প্রথম ওভারেই পরপর দুই বলে বরুণ আর পঙ্কজকে বিদায় করে ইংল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন ক্রিস জর্ডান। ম্যাচ সেরা হয়েছেন স্টুয়ার্ট ব্রড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ১৫২ (ধোনি ৭১, অশ্বিন ৪০; ব্রড ৬/২৫, অ্যান্ডারসন ৩/৪৬) ও ১৬১ (বিজয় ১৮, গম্ভীর ১৮, পুজারা ১৭, কোহলি ৭, রাহানে ১, ধোনি ২৭, জাদেজা ৪, অশ্বিন ৪৬*, ভুবনেশ্বর ১০, অ্যারন ৯, পঙ্কজ ০; মইন ৪/৩৯, অ্যান্ডারসন ২/১৮, জর্ডান ২/৬৫, ওয়কস ১/৩৭)

ইংল্যান্ড: ৩৬৭ (কুক ১৭, রবসন ৬, ব্যালান্স ৩৭, বেল ৫৮, জর্ডান ১৩, রুট ৭৭, মইন ১৩, বাটলার ৭০ ওয়কস ২৬*, ব্রড ১২, অ্যান্ডারসন ৯; ভুবনেশ্বর ৩/৭৫, অ্যারন ৩/৯৭, পঙ্কজ ২/১১৩, জাদেজা ১/৩৬)।

ইউএম/