জামায়াতের সাবেক এমপিসহ ১২ নেতা-কর্মী আটক

0
147
jamaat
বাংলাদেশ জামায়াতে ইমলামীর লোগো।
jamaat
বাংলাদেশ জামায়াতে ইমলামী

বগুড়ায় গোপন বৈঠক করার অভিযোগে শুক্রবার রাতে জামায়াতে ইসলামীর সাবেক সাংসদসহ ১২ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। নাশকতা ও সহিংসতার মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এদিকে গত বছরের ৩ মার্চ গানপাউডার ছিটিয়ে নন্দীগ্রাম উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স পোড়ানোর মামলায় উপজেলা ওলামা দলের নেতা আনছার আলীকে (৫৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বগুড়ার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মোজাম্মেল হক জানান, শহরের সূত্রাপুর রিয়াজ কাজী লেনে সুমা ক্লিনিকের চতুর্থ তলায় জামায়াতের নেতা-কর্মীরা শুক্রবার ১০ দশটার দিকে সরকারবিরোধী ‘গোপন বৈঠক’ করছে বলে খবর পাওয়া যায়। এ খবরের ভিত্তিতে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও বগুড়ার সদর থানা পুলিশের দুটি দল সেখানে অভিযানে যায়। অভিযান চালিয়ে বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনের জামায়াতের সাবেক সাংসদ ও উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা শাহাদতুজ্জামান, জেলা জামায়াতের সাবেক আমির ও কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের সাবেক সদস্য গোলাম রব্বানী, শিবগঞ্জ উপজেলা জামায়াতের সাবেক আমির আবদুল খালেক, নোগল মাল্টি পারপাস সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক নাফিউল সিদ্দিকী, শাজাহানপুর উপজেলার পাড়টেকুর মাদ্রাসার শিক্ষক আতিকুর রহমানসহ ২০ জনকে আটক করা হয়। যাচাইবাছাইয়ের পর সাবেক সাংসদসহ ১২ জনকে সহিংসতা ও নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।