ধর্ষণ করলে ১৬ বছরেও সর্বোচ্চ সাজা

0
175
rape
ভারতে ধর্ষণ-প্রতিকী ছবি

ধর্ষণ ও খুন মামলায় ১৬ বছরের বেশি বয়সের শিশুর জন্য প্রাপ্ত বয়স্কদের মতো শাস্তির বিধান রেখে একটি বিল অনুমোদন করেছে ভারতীয় মন্ত্রিসভা।

rape
ভারতে ধর্ষণ-প্রতিকী ছবি

২০১২ সালে দিল্লিতে ১৭ বছরের শিশুদের দ্বারা গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনার কারণে এমন কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বর্তমান আইন অনুযায়ী, শিশু আদালতে ১৮ বছরের কম বয়সী শিশুদের সর্বোচ্চ ৩ বছরের সাজা দেওয়া হয়।

নতুন এই বিল অনুযায়ী, ১৬ বছর থেকে শিশু আদালতের পরিবর্তে প্রাপ্তবয়স্কদের আদালতে বিচারের সম্মুখীন হবে ভারতীয়রা। আদালত তাদেরকে খুন ও ধর্ষণ মামলার জন্য দীর্ঘ সময়ের জন্য শাস্তি দিতে পারবেন। এমনকি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বা মৃত্যুদণ্ডের আদেশও হতে পারে।

বিলটি এখন সংসদে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে।

দিল্লির একটি বাসে ২৩ বছরের ছাত্রীকে গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় আন্তর্জাতিকভাবে চাপে পড়ে ভারত সরকার। এর ফলে নতুন করে ধর্ষণরোধে কঠোর আইন তৈরিতে বাধ্য হয় দেশটি।

গত সপ্তাহে ভারতের মহিলা ও শিশু উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী মনেকা গান্ধী সংসদকে বলেন, নতুন বিলটি অপ্রাপ্তবয়স্ক অপরাধীদের জন্য প্রতিবন্ধকতা তৈরি করবে এবং ধর্ষণের শিকার হওয়া নারীর অধিকার রক্ষা করবে।

যদিও শিশু অধিকার সংগঠনগুলো এই বিলের সমালোচনা করেছেন।

শিশু অধিকার রক্ষার বিষয়ক ভারতের জাতীয় কমিশন প্রস্তাবিত সংশোধনীকে পশ্চাৎগামী এবং সংস্কারমূলক আইনের শাসনবিরোধী হিসেবে অভিহিত করেছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ভারত সরকারের কাছে এই বিল বাতিলের জন্য আবেদন করেছে।

ভারতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের উপ-প্রধান নির্বাহী শশী কুমার ভেলাথ বলেন, শিশুরা কখনও কখনও প্রাপ্তবয়স্কদের মতো ভয়ংকর কিছু অপরাধ করতে পারে। এসব অপরাধের শিকার ব্যক্তির পরিবার শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্ক অপরাধীদের একইভাবে বিবেচনা করে কিনা তা জানা জরুরি।

তিনি আরও বলেন, শিশুরা যখন প্রাপ্তবয়স্কদের মতো অপরাধ করে তখন তা কিছুটা ভিন্ন। কারণ, তারা অসম্পূর্ণ। এর শাস্তি অবশ্যই ভিন্ন হওয়া উচিত। বিশেষ বিবেচনায় শিশুদের সংস্কার ও পুনর্বাসন জরুরি। শিশু মনের সঠিক বিশ্লেষণ প্রয়োজন।

সূত্র: বিবিসি

এমই/