তোবা শ্রমিকদের নিয়ে রাজনীতি শুরু হয়েছে: বিজিএমইএ

0
89
Toba_BGMEA
মঙ্গলবার তোবা গ্রুপের শ্রমিকদের বকেয়া পাওনার দাবিতে বিজিএমইএ ভবন ঘেরাও করে তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটি। ছবি তুলেছেন খালিদুল কবির নয়ন

বিজিএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এসএম মান্নান কচি অভিযোগ করেছেন, তোবা শ্রমিকদের নিয়ে রাজনীতি শুরু হয়েছে। এতে রাজনৈতিক নেতারা লাভবান হবেন; তোবার শ্রমিকরা নন।

মঙ্গলবার তোবা গ্রুপের শ্রমিকদের বকেয়া পাওনাদির বিষয়ে বিজিএমইএ ভবন ঘেরাও করে তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটি। এরপর বিজিএমইএর পক্ষ থেকে এক সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন।

এসময় তিনি আগামীকাল বুধবার বেতন নিতে অনশনরত শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

কচি বলেন, বিজিএমইএ কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান নয় যে তারা তোবার শ্রমিকদের বেতন প্রদান করবে। এটা শধুমাত্র সেবামূলক প্রতিষ্ঠান। তবে মানবিক কারণে সংগঠনটি বিভিন্ন উৎস থেকে অর্থ সংগ্রহ করে শ্রমিকদের দুই মাসের পাওনা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে।

শ্রমিকরা বেতন নেবে কি না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা কালকের দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করবো। যদি শ্রমিকরা না আসে সে ক্ষেত্রে বিজিএমইএর আর কিছু করার থাকবে না।

তোবার শ্রমিকদের নিয়ে রাজনীতি না করার জন্য সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, তোবা গার্মেন্টস নিয়ে রাজনীতি শুরু হয়েছে। প্রত্যেকটা দল চাচ্ছে তাদের ক্রেডিট প্রদর্শন করতে। যদি শ্রমিকরা টাকা না নিয়ে রাজনীতি করে তবে তাতে শুধু শ্রমিকরাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে; রাজনীতিবিদরা নন।

তোবা গ্রুপের মালিক দেলোয়ারের জামিন নিয়ে তিনি বলেন, যদি মালিক জামিনযোগ্য হন তবে আদালত তাকে জামিন দেবে। শাস্তিযোগ্য হলে শাস্তিও পাবে। তবে সে গ্রেপ্তারের কারণে কারখানায় অর্ডার ও ব্যাংক ঋণ কমে গেছে বলে জানান তিনি।

এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, কারখানাটি চলতি বছরের জুন মাস থেকে সাব-কন্ট্রাটে কাজ করছে। যে কারখানার মাধ্যমে ঋণ কিংবা এলসি করা হতো ব্যাংক শুধু ওই কারখানাটিতে বেতন দিয়েছে। ব্যাংক বাকি কারখানাগুলোর ঋণ দিতে চায়নি।

সংবাদ সম্মেলনে বিজিএমইএ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।