‘বাটলারের সেঞ্চুরিটি কোহলি করলে ২ মাস ধরে প্রশংসা করতাম’

পাওয়ার হিটিংয়ের যুগে রান করাটা তুলনামূলক সহজ। তারপরও ইডেন গার্ডেন্সের মাঠে গতরাতে অবিশ্বাস্য কিছুই করেছেন বাটলার। তার উপস্থিতিতে হাতে ৪ উইকেট নিয়ে শেষ ৬ ওভারে ৯৬ রান তোলে রাজস্থান। রেকর্ড রান তাড়া করে জেতার পেছনে বাটলারের অবদানই বেশি। ৬০ বলে অপরাজিত ১০৭ রানের ইনিংস খেলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ২২৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করে রাজস্থান রয়্যালসকে জিতিয়েছেন জস বাটলার।

১৫তম ওভারে কলকাতার স্পিনার বরুণ চক্রবর্তীকে চারটি চার মারেন বাটলার। ওই ওভারে আসে ১৭ রান। এমনকি পরের ওভারেও রান আসে ১৭। আন্দ্রে রাসেলের সেই ওভারে একটি ছক্কা হাঁকান বাটলার। এরপর সুনীল নারিনের পরের ওভারে আসে ১৬ রান। শেষ ৩ ওভারে ৪৬ রান লাগত রাজস্থানের। এর মধ্যে ১৮তম ওভারে মিচেল স্টার্ক দেন ১৮ রান। সবমিলিয়ে নয়টি চার ও ছয়টি ছক্কায় সাজানো ছিল বাটলারের ইনিংস। শেষদিকে ১৩ বলে ২৬ রান করে দলকে এগিয়ে দেয়ার কাজটি করেন রভম্যান পাওয়েল। এমন অবিশ্বাস্য ইনিংসের পরেও প্রাপ্য প্রশংসা পাচ্ছেন না এই ওপেনার, দাবি হরভজন সিংয়ের।

ভারতের সাবেক এই স্পিনার বলেন, ‘সে দারুণ একজন খেলোয়াড়। তাকে আপনার অন্য লেভেলের খেলোয়াড় বলতে হবে। জস বাটলার এবারই এটা প্রথম করেনি। সে অনেকবারই এমনটা করেছে। আমরাও তাকে এমন খেলতে অনেকবার দেখেছি। সে সত্যিই অসাধারণ। আমরা তাকে নিয়ে অনেক বেশি বলি না কারণ সে ভারতীয় না। যদি বিরাট কোহলি এমন একটি সেঞ্চুরি করত তাহলে আমরা তাহলে দু’মাস ধরে তার প্রশংসা করতাম। যেমনটা আমরা মহেন্দ্র সিং ধোনির টানা তিন ছক্কা (মুম্বাইয়ের বিপক্ষে) নিয়ে করছি। আমাদের উচিত আমাদের ক্রিকেটারদের মতোই তার (বাটলার) প্রশংসা করা। কেননা সেও এই খেলাটির একজন কিংবদন্তি।’

অর্থসূচক/এমএইচ/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.