গাজা যুদ্ধে পরাজয় ঠেকাতে পারবে না ইসরাইল: ইরানের সর্বোচ্চ নেতা

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের ইরানি কনস্যুলেট ভবনে হামলা চালানোর কারণে ইসরাইলকে বড় ধরনের চপেটাঘাত খেতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী।

গতকাল রাতে প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের এক সম্মেলনে ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খামেনেয়ী বলেন, এ ধরনের হামলা চালিয়ে ইসরাইল গাজা যুদ্ধে নিজের পরাজয় ঠেকাতে পারবে না। সিরিয়ায় ইহুদিবাদী সরকার যে কাপুরুষোচিত কাজ করেছে তা তার পরাজয় রোধ করবে না। এই অপকর্মের জন্য তাদেরকে চপেটাঘাত খেতে হবে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, গাজায় ইহুদিবাদী সরকারের ব্যর্থতা ও পরাজয় অব্যাহত থাকবে এবং এই সরকার পতন ও বিলুপ্তির দিকে এগিয়ে যাবে। পরাজয় ও ব্যর্থতার গ্লানি ঢাকতে সিরিয়ায় তারা যে অপরাধ করেছে তা তাদের বাঁচাতে পারবে না।

এ বছরের বিশ্ব কুদস দিবস ভিন্ন আঙ্গিকে পালিত হবে জানিয়ে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, চলতি বছরের বিশ্ব কুদস দিবস শুধু মুসলিম দেশগুলোতেই পালিত হবে না সেইসঙ্গে তা অমুসলিম দেশগুলোতেও সাড়ম্বরে পালিত হবে। যারা গত ছয় মাস ধরে গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে শোভাযাত্রা করে এসেছে তারা সবাই বিশ্ব কুদস দিবসে রাস্তায় নেমে আসবে। এ বছরের বিশ্ব কুদস দিবস দখলদার ইসরাইল সরকারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ঘৃণা দিবসে পরিণত হবে।

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের বিগত ছয় মাসের অপরাধযজ্ঞকে ‘ইতিহাসে নজিরবিহীন’ আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, এই অপরাধযজ্ঞের মাত্রা এতটা তীব্র যে, পশ্চিমা সংস্কৃতিতে বেড়ে ওঠা মানুষও এর বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, আমেরিকার সামরিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতা সত্ত্বেও যুদ্ধের শুরুতে ইসরাইল যেসব লক্ষ্য ঠিক করেছিল তার একটিও এখন পর্যন্ত অর্জন করতে পারেনি। পার্সটুডে

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.