২০তম আসরের আর্জেন্টিনা-জার্মানি

0
47
Argentina V Germany
ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা-জার্মানি।
২৮ বছর পর বিশ্বকাপ ট্রপিতে চুমু দেওয়ার স্বপ্ন বুনছে আর্জেন্টিনা। অপরদিকে জার্মানির ২৪ বছরের অপেক্ষা। বিশ্ব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের আসরে আজ দুটি দলই মাঠে নামবে এই আক্ষেপ ঘোচানোর আকাঙ্খা নিয়ে। উভয় দলই গ্রুপ পর্বের চ্যাম্পিয়ন।

Argentina V Germany
ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা-জার্মানি।

পর্তুগালকে ৪-০ গোলে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী জার্মানি ঘানার ২-২ গোলে ড্র করে। যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচে স্বরূপে ফিরে জার্মানি।

২য় পর্বে আলজেরিয়াকে ২-১ গোলে হারায় তারা। কোয়ার্টার ফাইনালে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের মুখোমুখি হয় এই দলটি। এই ম্যাচে ১-০ গোলে জয় পায় জার্মানি। এরপর সেমি-ফাইনালে স্বাগতিক ব্রাজিলকে ৭-১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করে ফাইনালে ভালো অবস্থানে থাকার ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছে জুয়াকিম লো এর শিষ্যরা।

গ্রুপ পর্বে প্রতিটি ম্যাচে ১ গোলের ব্যবধানে জয় পায় সাবেলার শিষ্যরা। বসনিয়াকে ২-১ গোলে, ইরানকে ১-০ গোলে এবং নাইজেরিয়াকে ৩-২ গোলে পরাজিত করে তারা।

২য় পর্বে সুইজারল্যান্ডসকে ১-০ গোলে, কোয়াটার ফাইনালে বেলজিয়ামাকে ১-০ গোল আর্জেন্টিনা। এরপর সেমি-ফাইনালে নেদারল্যান্ডেসের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করার পর ট্রাইবেকারে ৪-২ গোলে জয় পায় মেসিবাহিনী।

১৯৯০ সালে বিশ্বকাপ ফাইনালে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয় পায় জার্মানি। এটি তাদের তৃতীয়বার বিশ্বকাপ জয়। এরপর ২০০২ সালে ব্রাজিলের বিপক্ষে ফাইনালে পরাজিত হয় তারা।

অপরদিকে আর্জেন্টিনা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপে চুমু দিয়েছিল ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে। ১৯৯০ সালের ফাইনালে এই জার্মানির কাছেই পরাজিত হয়। দুই যুগ পর আবারও ফাইনাল খেলছে ম্যারাডোনার উত্তরসূরীরা।

আর্জেন্টিনাও খেলছে স্বপ্নের ফুটবল। লিওনেল মেসির জন্য আজ রাতটি নিজেকে গ্রেটদের কাতারে নিয়ে যাওয়ার। তাকে সাহায্য করার জন্য দলে আছেন ডি. মারিয়া, হিগুইন, আগুয়েরোর মতো স্ট্রাইকাররা।

আবার টমাস মুলার, ফিলিপ লাম, ম্যানুয়েল নয়্যার, বাস্তেইন শোয়েনস্টাইগাররাও চাইবেন নিজেদের লোথার ম্যাথাউস, ইয়ুর্গেন ক্লিন্সম্যান কিংবা রুডি ফোলারদের মতো ‘বিশ্বজয়ী জার্মান’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে।

আর্জেন্টিনার হয়ে আজ যারা মাঠ মাতাতে পারেন তাদের মধ্যে আছেন এবারের বিশ্বকাপের ৬ ম্যাচের ৪ টিতেই ম্যাচসেরার পুরস্কার জয়ী লিওনেল মেসি। বলা যায়, আর্জেন্টিনা দলকে একাই ফাইনালে নিয়ে এসেছেন এই ক্ষুদে ফুটবল জাদুকর। ফাইনাল মঞ্চে বিজয়ী হওয়ার জন্য আর্জেন্টাইনরা আজও তাকিয়ে থাকবে তার দিকে।

আছেন দুর্দান্ত খেলা জাভিয়ের মাসচেরানো, অ্যাংগেল ডি. মারিয়া ও গোল রক্ষক সার্জিও রোমেরো। এদের যেকেউ হয়ে উঠতে পারেন আজকের ফাইনালের নায়ক। এছাড়াও গঞ্জালো হিগুইন, আগুয়েরো, পাবলো জাবালেতা ও লাভেজ্জির মত খেলোয়াররা তো থাকছেনই।

এই তারকারা যদি আজকের সপ্নের ফাইনালে নিজেদের মেলে ধরতে পারেন তবে আর্জেন্টাইনরা দীর্ঘ ২৮ বছরের আক্ষেপ ঘোচানোর আশায় বুক বাঁধতেই পারে। তবে আর্জেন্টিনা দলে তারকার ছড়াছড়ি হলেও বিশ্বকাপে মেসি ছাড়া কেউই নিজেকে সঠিকভাবে প্রমাণ করতে পারেননি।

এদিকে ফাইনালে প্রতিপক্ষ জার্মানি খেলছে সপ্নের ফুটবল। তাদের দলে তারকা খেলোয়াড় খুব বেশি না থাকলেও সবাই যেন তারকা। টমাস মুলার, ফিলিপ লাম, শোয়েনস্টাইগার, টনি ক্রুজ, আন্দ্রে শুরলে, মারিও গোটশে, ক্লোসা সবাই আছেন নিজেদের সেরা ফর্মে।

আর গোলবারের নিচে আছেন আস্থার প্রতীক বর্তমান বিশ্বের ১ নম্বর গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়ার। জার্মানরা যদি তাদের সেমি-ফাইনালের ফর্মটা আজকের ফাইনাল ম্যাচে টেনে আনতে পারে তাহলে আর্জেন্টিনার আক্ষেপ আরও দীর্ঘায়িত হবে এটা নিশ্চিতভাবেই বলা যায়।

এমই/