বেসিকের দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ

0
40

BD_ BB_press conferenceবেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের আস্থাভাজন, দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রোববার সকালে বেসিক ব্যাংকের বর্তমান চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন মজিদ ও ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুস সোবহান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গর্ভনরের সাথে সাক্ষাত করেন।

এসময় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান দুর্নীতিপরায়ন কর্মকর্তাদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেন।

তাদের  বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের করা অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন দিয়ে সহযোগিতা করা হবে বলেও জানান তিনি।

সাক্ষাত শেষে বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যানকে গভর্নরের পক্ষ থেকে এসব পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক এস.এম মনিরুজ্জামান।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বেসিক ব্যাংকের দুর্নীতি নিয়ে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় অনেক লেখালিখি হয়েছে। এসব তথ্য নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনসহ অনেক প্রতিষ্ঠান তদন্ত করছে। তাদের এ তদন্তের প্রয়োজনে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকেও সহযোগিতা করা হবে বলেও জানান তিনি। যার যে অপরাধ যদি চিহ্নিত করা যায় তার পরিপ্রেক্ষিতেই ব্যবস্থা নেওয়া যাবে বলে মনে করেন গভর্নর।

এস.এম মনিরুজ্জামান বলেন, বেসিক ব্যাংক সরকারি মালিকানাধীন ব্যাংক। ব্যাংকটির প্রতি মানুষের যে আস্থা পুনরুদ্ধার ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার পরামর্শ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এজন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। পাশাপাশি এ ব্যাংকের ঋণ শৃঙ্খলা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা দরকার বলেও মনে করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এ জন্য ঋণ বিতরণের পূর্বে পর্যালোচনা, পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে ঋণ বিতরণ করা ও ঋণ আদায়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

নামে-বেনামে বা জালিয়াতি করে যেসব প্রতিষ্ঠান বেসিক ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছে তাদের খুঁজে বের করা ও খেলাপী ঋণ আদায়ে গঠিত টাস্ক ফোর্সের কার্যক্রম জোরদার করার পরামর্শ দেওয়া হয়।পরিচালনা পর্ষদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্যও গভর্নর পরামর্শ দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন এ নির্বাহী পরিচালক।

তিনি আরও বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বেসিক ব্যাংকের করা এমওইউ-এর শর্তাবলী বাস্তবায়নে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে শর্তাবলী কিছুটা পরিবর্তন ও নমনীয় করার প্রয়োজন আছে বলে বেসিক ব্যাংকের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে বলে জানান তিনি। ব্যাংকটির কর্মকর্তাদের নিয়োগ, বদলি ও পদোন্নতির স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এসব ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংক কোনো হস্তক্ষেপ করবে না বলে জানান এ নির্বাহ পরিচালক।

বেসিক ব্যাংকে পূর্বের ন্যায় লাভজনক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে প্রতিনিধি দলের সাথে করা বৈঠকে গভর্নর আরও যেসব পরামর্শ দিয়েছেন তা হলো- যেসব শাখা মাধ্যমে ব্যাংকটির ঋণ বিতরণে অনিয়ম হয়েছে যেমন গুলশান শাখা, শান্তিনগর শাখা, দিলকুশা ও প্রধান শাখা, আগ্রাবাদ শাখা ও জুবিলী রোড শাখার সামগ্রীক আর্থিক কার্যক্রম কঠোর নিয়ন্ত্রন এবং পরবর্তীতে ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা।

ব্যাংকের ব্যয় সংকোচনের ক্ষেত্রে জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপে নেওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন গভর্নর।

এসএই/