‘যন্ত্রণার’ ম্যাচে নামছে ব্রাজিল

0
44
brasil

বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন ভেঙে যাওয়ার পর দুটি দলকে মাঠে নামিয়ে দেওয়ার মধ্যে একটা নিষ্ঠুরতা আছে । তাই বিশ্বকাপের ৬৩ নম্বর ম্যাচটি হয়ে ওঠে যন্ত্রণার। আজ রাতে সেই ম্যাচে খেলতে নামা দুটি দলের একটি ব্রাজিল। নিজেদের মাটিতে হেক্সা স্বপ্ন পূরণের জন্য মরিয়া ব্রাজিল জানতো রানারআপ হলেও তাদের চলবে না। খেলতে হবে মারাকানায়, ব্রাজিলকে ভুলিয়ে দিতে হবে ১৯৬০’র দুঃস্বপ্ন। কিন্তু ফুটবল বিধাতা ব্রাজিলের কপালে লেখেনি স্বপ্নের ফরমান। জার্মানির বিপক্ষে সেমিফাইনাল যদি বিশ্বকাপ ইতিহাসে স্বপ্নভঙ্গের করুণতম গল্প হয়,আজ ব্রাসিলিয়ায় বিশ্বকাপ ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম ম্যাচে নামছে ব্রাজিল।

Brazil vs Netherlands
ব্রাজিল বনাম নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশ সময় রাত ২টায় তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচটা হয়ে যাচ্ছে গত বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের রিপ্লেও। ডাচদের কাছেই হেরে কোয়ার্টার ফাইনালে বিদায় নিয়েছিল ব্রাজিল। কিন্তু আফসোস, এমন এক ম্যাচে তাদের আবার দেখা হলো, যে ম্যাচের নেপথ্য সংগীত হিসেবে প্রতিশোধের চাইতে হতাশার সুরই ঝরবে ব্রাজিলিয়ানদের হৃদয়ে।

বিশ্বকাপের প্রথম আসরে ছিল না কোনো ৩য় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ, ১৯৩৪ সালে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় আসরে ৩য় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ ঢুকে পড়ে সূচিতে। বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান পাওয়া দলটার গুরুত্ব তেমন থাকে না বলেই বোধ হয় ম্যাচটি আকর্ষণ হারায়। আবার চ্যাম্পিয়নদের বরণ করতে সেমিফাইনালে হেরে যাওয়া দুই দলের খেলা দেখার মানসিকতাও থাকে না দর্শকদের।

বেলো হরিজন্তের স্তাদিও মিনেইরোতে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে সেলকাওদের হারে হলুদ সমুদ্রে ওঠে শোকের মাতম। ধারাভাষ্য কক্ষ থেকে ভেসে এল, দেশের মাটিতে এই একটি ম্যাচই (তৃতীয় স্থান নির্ধারণী) খেলতে চায়নি ব্রাজিল। অথচ সেটাই তাদের খেলতে হচ্ছে।

৭-১ গোলে হারের পর স্কলারি যে আর ব্রাজিলের কোচের পদে থাকছেন না, সেটাও একরকম বলে দেওয়াই যায়। দলে আসবে অনেক পরিবর্তন, খুব সম্ভবত ফ্রেড, ফের্নান্দিনিয়ো, জুলিও সিজাররা জাতীয় দলের জার্সিতে তাদের শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন সেমিফাইনালেই। ইতোমধ্যে এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরেছেন অধিনায়ক থিয়েগো সিলভা। যার অনুপস্থিতিতে ব্রাজিল দলের রক্ষণভাগের চেহারায় দৈন্যতা প্রকাশ পায়জার্মানদের বিপক্ষে সেমিফাইনালে।আজ রক্ষণভাগে মাইকন ও মার্সেলোকে সহায়তার জন্য যোগ দিতে পারেন দানি আলভেস। আর মধ্যমাঠে শুরু থেকেই দায়িত্ব পালন করতে পারেন হারনানেস।

স্কলারি আজ হয়তো খেলাবেন ম্যাক্সওয়েলকেও। গোলবারে সিজারের বদলে জেফারসন বা ভিক্টরকে দেখা গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

তৃতীয়স্থান নির্ধারণী লড়াইয়ে ভাল করার জন্য সতীর্থদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে নেইমার বলেছেন, জয়ের হাসি দিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ করা উচিত আমাদের। জানি, এই জয় আমাদের দুঃখ কমাতে পারবে না। তারপরও এই জয়টা দরকার। কিন্তু নেইমার নিজেও জানেন সেই হাসির পেছনে কত কান্না!

আর্জেন্টিনার কাছে ভাগ্য পরীক্ষায় পরাস্ত হয়ে ডাচ কোচ লুই ফন গালও বলেছিলেন,বিশ্বকাপের সবচেয়ে অর্থহীন খেলা হচ্ছে এই তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ। আজকের ম্যাচকে ঘিরে আলাদা কোনো প্রস্তুতিও নেই ডাচ কোচের।

এই ম্যাচে স্বাগতিক ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হলেও বিশ্বকাপ ভালো কেটেছে বলে জানালেন নেদারল্যান্ডসের কোচ লুইস ফন গাল, দারুণ একটি টুর্নামেন্ট হয়েছে আমাদের। আমরা গ্রুপ পর্ব পার করবো এটাই অনেকে বিশ্বাস করেনি।