সুপার ফোরে ভারত

এশিয়া কাপের ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে নেপালকে পাত্তাই দেয়নি ভারত। বৃষ্টি বাগড়া দেয়ার এই ম্যাচে তুলনামূলক খর্বশক্তির এই দলটিকে দশ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে রোহিত শর্মার দল। এই জয়ে সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে আসরের অন্যতম ফেভারিট এই দলটি।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ায় সুপার ফোরে উঠতে নেপালের বিপক্ষে জিততে হতো ভারতকে। অবশ্য বৃষ্টির কারণে ম্যাচটি পণ্ড হলেও পরের রাউন্ডে যেতে পারত ভারত। তবে নেপালের বিপক্ষে সহজ জয়ে সহজেই পরের রাউন্ডে গেল রোহিতের দল। ম্যাচটিতে আগে ব্যাটিং করে ৪৮.২ ওভারে ২৩০ রান তোলে নেপাল। দলটির বোলাররা বাজে দিন পার করলেও ব্যাটাররা ভালোই ভুগিয়েছে জসপ্রীত বুমরাহবিহীন ভারতের বোলিং লাইনআপকে।

এতে অবশ্য ভারতের ফিল্ডারদেরও কৃতিত্ব দেবে নেপালের ব্যাটাররা। মাত্র পাঁচ ওভারের মধ্যেই তিনটি ক্যাচ মিস করেন শ্রেয়াস আইয়ার, বিরাট কোহলি এবং ইশান কিশান। এই সুযোগেরান বাড়াতে থাকে দলটি।

উদ্বোধনী জুটিতেই দলটি তোলে ৬৫ রান। ওপেনার কুশল ভুরতাল ২৫ বলে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে ফিরে যান। তারপর থেকে অবশ্য নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে দলটি। মিডল অর্ডারে একের পর এক ভাঙন ধরান রবীন্দ্র জাদেজা। তিন, চার, পাঁচে খেলা নেপালি ব্যাটারদের ফেরান এই অলরাউন্ডার। নেপালের হয়ে ৯৭ বলে সর্বোচ্চ ৫৮ রান করেন আরেক ওপেনার আসিফ শেখ। শেষদিকে অবশ্য সোমপাল কামি, দিপেন্দ্র সিং, গুলশান ঝা’রাও হাত চালান।

৫৬ বলে ৪৮ রানের কার্যকরি ইনিংস খেলেন সোমপাল। ২৫ বলে ২৯ রান করেন দিপেন্দ্র। গুলশান করে ২৫ বলে ২৩ রান। ভারতের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ সিরাজ এবং জাদেজা।

ভারত লক্ষ্য তাড়া করতে নামার একটু পরই অবশ্য বৃষ্টি শুরু হয়। বেশ কিছুক্ষণ বৃষ্টির জন্য খেলা বন্ধ থাকে। খেলা শুরু হলে বৃষ্টির কারণে ডিএল মেথডে ভারতের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৩ ওভারে ১৪৫ রানের। সেই লক্ষ্য ২০.১ ওভারেই তাড়া করে ভারত। অধিনায়ক রোহিত শর্মা ৫৯ বলে ছয়টি চার ও পাঁচটি ছক্কায় ৭৪ রানে অপরাজিত থাকেন। আরেক ওপেনার শুভমান গিল করেন আটটি চার ও একটি ছক্কায় ৬২ বলে ৬৭ রান।

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.