‘সমুদ্রসীমা মামলায় বাংলাদেশ জয়লাভ করেনি’

0
70
latifsiddique
আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী
latif siddque
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী বসে আছেন। বক্তব্য দিচ্ছেন তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রি জোনায়েদ আহমেদ পলক।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী মনে করেন, সমুদ্রসীমা মামলায় ভারত কিংবা মায়ানমারের কেউ পরাজিত হয়নি। আর বাংলাদেশও জয়লাভ করেনি।

বুধবার রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি আয়োজিত ইফতার মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি। এসময় তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জোনায়েদ আহমেদ পলক, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলামসহ কম্পিউটার সমিতির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

লতিফ সিদ্দিকী বলেন, ভারতের সাথে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমার একটা মীমাংসা হয়েছে। বাংলাদেশ তাদের সমুদ্রসীমানা সঠিকভাবে ব্যবহার করতে না পারায় আর্ন্তজাতিক আদালতে মামলা করেছে। মামলায় বাংলাদেশকে একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ জায়গা দেওয়া হয়েছে। এতে বাংলাদেশের জয়লাভের কিছু নেই।

তিনি আরও বলেন, ‘রায়ে এক পক্ষ জয় লাভ করলে অন্য পক্ষ পরাজিত হয়। কিন্তু এ মামলায় দুই পক্ষকেই জয়ী ঘোষণা করা হচ্ছে। আসলেই কেউ জয়ী নয়। যার যার অধিকার তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে’।

লতিফ ছিদ্দিকী বলেন, মায়ানমারের সঙ্গে সমুদ্র বিজয় নিয়ে আমরা উৎসব করেছি। আবার মায়ানমারও সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। তাই এটাকে বিজয় বলা যাবে না। যার যার সমুদ্র তটরেখা ও মহীসোপান তাদের মতো করে ব্যবহারের সুযোগ হয়েছে মাত্র।

এসময় তিনি বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির কম্পিউটারের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, আপনাদের কোনো কম্পিউটার বেশি দিন ভালো থাকে না। সরকারি কোনো অফিসে আপনাদের কম্পিউটার নেওয়া হলে তা কয়েকদিন পরই পরিবর্তন করতে হয়।

তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জোনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত করা হবে। এজন্য সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি বিভিন্ন উদ্যোক্তাদের তথ্য প্রযুক্তির অগ্রসরে এগিয়ে আসতে হবে।

এইউ নয়ন/সাকি