শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণ চেষ্টার প্রতিবাদ

0
42
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি ও সমকালের নগর সম্পাদক শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণ চেষ্টার প্রতিবাদ
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি ও সমকালের নগর সম্পাদক শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণ চেষ্টার প্রতিবাদ
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি ও সমকালের নগর সম্পাদক শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণ চেষ্টার প্রতিবাদ
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি ও সমকালের নগর সম্পাদক শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণ চেষ্টার প্রতিবাদ

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি ও সমকাল-এর নগর সম্পাদক শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণের চেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে সাংবাদিকেরা।

সোমবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ করেন তারা।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণের চেষ্টার প্রতিবাদে ডিআরইউসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের সদস্যরা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি হাইকোর্টের সামনের কদম ফোয়ারা-পল্টন মোড় হয়ে আবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

এ সময় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়ক অবরোধ করে রাখেন সাংবাদিকেরা। ১৫ মিনিট পর অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। পরে সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন সাংবাদিকেরা।

বিক্ষোভ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোরসালিন নোমানী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি শওকত মাহমুদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) একাংশের সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ, ডিইউজের আরেক অংশের সভাপতি আবদুল হাই সিকদার প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বিজয় সরণি মোড় থেকে শাহেদ চৌধুরীকে অপহরণের চেষ্টা চালায় দুর্বৃত্তরা।

শাহেদ চৌধুরী বলেন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি থেকে তিনি মাইক্রোবাসে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ইফতার পার্টিতে যাচ্ছিলেন। গাড়িটি বিজয় সরণি মোড়ে পৌঁছলে সিগন্যালে আটকা পড়ে। সিগন্যাল ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই সাদা রঙের একটি গাড়ি তাকে বহনকারী গাড়ির গতিরোধ করে। এরপর গাড়ি থেকে দুই যুবক নেমে মাইক্রোবাস থেকে তাকে টেনে-হিঁচড়ে নামানোর চেষ্টা করে। এরপর পরিচয় জিজ্ঞেস করতেই তারা জোর করে তাকে সাদা প্রাইভেটকারে তোলার চেষ্টা চালায়। বাধা দিলে তাদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়।

এ সময় হাতে আঘাত পান বলে জানান শাহেদ চৌধুরী।

এরপর লোকজন জড়ো হলে ওই দুই যুবক দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। চলে যাওয়ার সময় হুমকি দিয়ে বলে,’এবার বেঁচে গেলি,দেখি তুই ঢাকায় কিভাবে বেঁচে থাকস।’