বাদাম গর্ভের বাচ্চার এলার্জি ঝুঁকি কমায়

0
135

nutsবাদাম নিয়ে কিছু আলোচনা আছে এমনিতেই। আছে এলার্জির অভিযোগও। কিন্তু যেসব গর্ভবতী মায়েরা নারকেল বা নারকেল জাতীয় খাবার খান তাদের  বাচ্চাদের এলার্জিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের কিছু গবেষক  আট হাজারেরও বেশি বাচ্চা ও তাদের মায়েদের ওপর গবেষণা চালিয়ে এ ফলাফল পেয়েছেন। খবর বিবিসির।

গবেষকরা জানান, গর্ভে সন্তান ধারণের পর গর্ভাশয় ধীরে ধীরে বড় হবার সাথে সাথে তাদের খাদ্য গ্রহণও সহনীয় পর্যায়ে চলে আসে। তবে অন্যান্য গবেষণায় দেখানো হয়েছে, বাদাম বা নাট জাতীয় খাবার খেলে তাদের ওপর কোনো প্রভাব পড়ে না এমনকি ওইসব মায়েদের কোন ঝুঁকির সম্মুখিন হতে হয় না।

এদিকে, বিশেষজ্ঞরা বলছেন যেসব মায়েরা আগের থেকেই এলার্জিতে ভুগছেন তাদের এই ধরণের খাবার যথাসম্ভব এড়িয়ে যাওয়া উচিত।

বোস্টনের ডানা ফেবার শিশু ক্যানসার সেন্টারের ড. লিনডসে ফ্রেজিয়ারের নেতৃত্বে গবেষকরা জানান, গর্ভকালীন মায়েরা নাটজাতীয় খাবার খেলে বাচ্চাদের এলার্জি কমবে, তবে খুব বেশি কমবে না।এসব নাট জাতীয় খাবারের মধ্যে রয়েছে আখরোট, কাজুবাদাম, পেস্তা বাদাম, চীনাবাদাম ইত্যাদি।

তারা জানান, নাটজাতীয় খাবার ভবিষ্যতে এলার্জি জাতীয় রোগ প্রতিরোধে কাজ করে।উদাহরণস্বরুপ বলা যায়, সে সব নারীরা ফলমুলসহ প্রচুর পরিমানে শাকসবজি খায় তাদের ডায়েট অনেক নিয়ন্ত্রনে থাকে।

ড. এডাম ফক্স বলেন, গবেষণাটি অনেক তাৎপর্যপুর্ণ, তবে তা এখন অস্বয়ংসম্পুর্ণ। এমনকি অনেক জটিল। তবে একটি ব্যাপারে স্পস্ট প্রমাণিত যে, এই সকল খাদ্যে যে এলার্জি থাকে তা বাচ্চা জন্মগ্রহণের পর পর্যন্হত তাকে আক্রান্ত করতে পারে না। এটা বাচ্চাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে কাজ করে।