ইসলামী কমার্শিয়াল ইন্স্যুরেন্সের লেনদেন শুরু

প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়া সম্পন্নের পর প্রথম দিন ১৩.৩০ টাকায় শুরু হয়েছে ইসলামী কমার্শিয়াল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার লেনদেন।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, প্রথম দিন কোম্পানিটির অ্যাডজাস্ট ওপেনিং প্রাইস নির্ধারণ করা হয়েছে ১২.১০ টাকা। তবে কোম্পানিটির শেয়ার দর ১.২০ টাকা বা ৯.৯২ শতাংশ বেড়েছে ১৩.৩০ টাকায় শুরু হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত কোম্পানিটির ২১০টি শেয়ার ৫ বার হাত বদল হয়েছে।

এন ক্যাটাগরিভক্ত ইসলামী কমার্শিয়াল ইন্স্যুরেন্সের ডিএসইতে ট্রেডিং কোড হচ্ছে : ” ICICL” এবং কোম্পানি কোড হচ্ছে : ২৫৭৫৬।

কোম্পানিটির আইপিওতে বরাদ্দ পাওয়া শেয়ার আবেদনকারীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাবে ১৩ ডিসেম্বর প্রেরণ করা হয়েছে। গত ২০ নভেম্বর থেকে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদন গ্রহণ করা হয়।

কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে ২০ কোটি ২৬ লাখ ১১ হাজার ০৬০ টাকা উত্তোলনের জন্য প্রতিটি ১০ টাকা মূল্যে ২ কোটি ২ লাখ ৬১ হাজার ১০৬টি শেয়ার ইস্যু করে।

পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের মাধ্যমে আইডিআরএর বিধান মোতাবেক বাধ্যতামূলকভাবে পুঁজিবাজার তালিকাভুক্তি নিশ্চিত করার পাশাপাশি ফিক্সড ডিপোজিট, সরকারি সিকিউরিটিজ, পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজে বিনিয়োগ এবং আইপিও ব্যয় নির্বাহ করবে।

কোম্পানিটির সর্বশেষ প্রকাশিত ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ সমাপ্ত অর্থবছরের নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী পুন:মূল্যায়নসহ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২০.৯৬ টাকায় এবং পুন:মূল্যায়ন বাদে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৭.৪৮ টাকায়। আর কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ১.৮২ টাকা।

কোম্পানিটি সাধারণ বীমা খাতে ব্যবসায় পরিচালনা করে।

বর্ণিত আইপিওর ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট, প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট ও ইসি সিকিউরিটিজ লিমিটেড এবং নিরীক্ষক হিসেবে কাজ করছে ইসলামী আফতাব অ্যান্ড কোম্পানি, চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টস।

উল্লেখ্য,  পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির পূর্বে কোম্পানিটি কোন প্রকার লভ্যাংশ ঘোষণা, অনুমোদন বা বিতরণ করতে পারবে না।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৮৩৮তম সভায় কোম্পানিটির আইপিও অনুমোদন দেয়া হয়।

অর্থসূচক/এমআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.