মুন্নু, বঙ্গজ ও মিথুনের শেয়ারে চমক

0
89
Bangas-Monno-muthin
মুন্নু জুট স্টাফলার্স, বঙ্গজ এবং মিথুন নিটিং লোগো
Bangas-Monno-muthin
মুন্নু জুট স্টাফলার্স, বঙ্গজ এবং মিথুন নিটিং লোগো

মুন্নু জুট, বঙ্গজ এবং মিথুন নিটিংয়ের শেয়ার যেন চমক দেখালো। সপ্তাহে শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন, সূচক, বাজার মূলধন এবং পিই রেশিও কমেছে। একইসাথে কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। সাপ্তাহিক লুজারেও রয়েছে ভালো মৌল ভিত্তির কোম্পানি। একইসাথে সাপ্তাহিক টপটেন গেইনারে স্থান করে নিয়েছে দুর্বল মৌলভিত্তির তিন কোম্পানির শেয়ার।

বিশ্লেষকরা বলছেন, অনেক সময় খারাপ মৌলভিত্তির শেয়ার কোন কারণ ছাড়াই বেশি বিক্রি বেড়ে যায়। এর ফলে এই প্রকৃতির শেয়ারের দর বেড়ে যায়। তেমনটিই ঘটেছে গত সপ্তাহে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের টপটেন গেইনার তালিকার চতুর্থ স্থানে মুন্নু জুট স্টাফলার্স, পঞ্চম স্থানে বঙ্গজ ও নবম স্থানে রয়েছে মিথুন নিটিং অ্যান্ড ডায়িং ।

সপ্তাহজুড়ে প্রকেৌশল খাতের মুন্নু জুট স্টাফলার এর শেয়ার দর ৪ দশমিক ৯১ শতাংশ বেড়েছে। এ কোম্পানির মোট ৮৭ লাখ ৩৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গড়ে প্রতিদিন ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ৬০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানিটি ১৯৮২ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এর অনুমোদিত মূলধন ১ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৪০ লাখ টাকা। ১০ টাকা ফেস ভ্যালুর এ কোম্পানির মার্কেট লট ৫০টি শেয়ারে। কোম্পানির মোট ৪ লাখ শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে ৫৬ দশমিক ৮১ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ২২ দশমিক ৬৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। কোম্পানিটি ২০১২ অর্থবছরে বিনিয়োগকারীদের ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ও ২০১৩ সালে ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষনা করেছে ।

এছাড়া সপ্তাহজুড়ে বঙ্গজ এর শেয়ারের দর ৪ দশমিক ৮৪ শতাংশ বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানির মোট ৮ কোটি ৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গড়ে প্রতিদিন ১ কোটি ৬১ লাখ ১৫ হাজার ২০০টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।এরই ধারাবাহিকতায় কোম্পানিটি সাপ্তাহিক গেইনারের ৫ম স্থানে উঠে এসেছে। ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানিটি ১৯৮৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এর অনুমোদিত মূলধন ৫০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা। ১০ টাকা ফেস ভ্যালুর এ কোম্পানির মার্কেট লট ৫০টি শেয়ারে। কোম্পানির মোট ৩৬ লাখ ৬০ হাজার ৫২৫টি শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে ৫০ শতাংশ , প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ৭ দশমিক ২২ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৪২ দশমিক ৭৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। কোম্পানিটি ২০১২ অর্থবছরে বিনিয়োগকারীদের ৪৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে এবং ২০১৩ সালে ৭০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দেয়।

নবম স্থানে থাকা মিথুন নিটিংয়ের শেয়ারের দর বেড়েছে দর ৪ দশমিক ২১ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানির মোট ২৭ কোটি ৫৯ লাখ ২৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। গড়ে প্রতিদিন ৫ কোটি ৫১ লাখ ৮৪ হাজার ৮০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ‘এ’ ক্যাটাগরির এই কোম্পানিটি ১৯৯৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে। এর অনুমোদিত মূলধন ২৫ কোটি টাকা ও পরিশোধিত মূলধন ১৯ কোটি ২৯ লাখ টাকা। কোম্পানিটির ১ কোটি ৯২ লাখ ৮৪ হাজার ৮৭৯ শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকের কাছে ৩১ দশমিক ১১ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১৭ দশমিক ২৭ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৫১ দশমিক ৬২ শতাংশ শেয়ার। কোম্পানিটি ২০১১ সালে ১৫ শতাংশ বোনাস, ২০১২ সালে ২০ শতাংশ বোনাস এবং ২০১৩ সালে ১৬ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে।

অর্থসূচক/এমএম/এমআরবি/