এলান মাস্কের নতুন ঘোষণায় পড়ে গেছে টুইটারের শেয়ারের দাম

মাইক্রো ব্লগিং প্ল্যাটফরম টুইটারকে কিনবেন না টেকনোলজি মোঘল এলান মাস্ক। কোম্পানিটির সাথে ৪৪ বিলিয়ন (সাড়ে চার হাজার কোটি) ডলারের অধিগ্রহণ চুক্তি বাতিল করার কথা জানিয়েছেন তিনি। তবে টুইটার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এলান মাস্ককে এত সহজে ছেড়ে দেবেন না তারা। চুক্তি বাস্তবায়নে তাকে বাধ্য করা হবে। প্রয়োজনে তাকে আইনের মুখোমুখি করবেন তারা।
এলান মাস্কের চুক্তি বাতিলের ঘোষণার তীব্র প্রভাব পড়েছে টুইটারের শেয়ারে। শুক্রবার (৮ জুলাই) এ ঘোষণার সাথে সাথে নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে টুইটারের শেয়ারের দাম পড়ে যায়। এদিন শেয়ারটি প্রায় ৫ শতাংশ দর হারায়। দিনের শুরুর দিকে অবশ্য দর পতনের হার ছিল আরও বেশি। পরে দর কিছুটা পুনরুদ্ধার হয়।
এদিকে টুইটারের সাথে চুক্তি বাতিলের ঘোষণায় বিপরীত প্রতিক্রিয়া দেখা যায় মাস্কের মূল কোম্পানি টেসলা ইনকরপোশনের শেয়ারে। শুক্রবার কোম্পানিটির শেয়ারের দাম এক শতাংশের বেশি বেড়ে যায়। টুইটার না কিনলে মাস্ক টেসলার প্রতি আরও বেশি মনোযোগ দিতে পারবেন এবং তাতে কোম্পানির ব্যবসা আরও বাড়বে-এমন আশাবাদের প্রভাবে উর্ধমুখী হয় টেসলার শেয়ারের দাম।
এককভাবে টুইটারের সবচেয়ে বড় শেয়ারহোল্ডার এলান মাস্ক চলতি বছরের শুরুর দিকে গোপনে এই শেয়ার কেনেন। তার ধারণকৃত শেয়ারের পরিমাণ প্রায় ১০ শতাংশ। এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহে তিনি পুরো টুইটারকে কিনে নেওয়ার ঘোষণা দেন। তিনি প্রতিটি শেয়ারের জন্য ৫৪ ডলার ২০ সেন্ট দর প্রস্তাব করেন। এই দর ওই সময়ের বাজার দরের চেয়ে বেশ বেশি।
মাস্ক হয়তো আশা করেছিলেন, তিনি অধিগ্রহণ করছেন এমন খবরে টুইটারের শেয়ারের দাম তরতর করে বাড়বে। কিন্তু তার আশার গুড়ে বালি পড়ে। বাড়ার পরিবর্তে উল্টো কমে যায় টুইটারের শেয়ারের দাম। অন্যদিকে টুইটার কেনা হলে তা নিয়ে মাস্কের ব্যস্ততা বেড়ে গেলে টেসলার প্রতি মনোযোগ কমবে এমন আশংকায় টেসলাও শেয়ারের দর হারায়।
বাজারে টুইটারের শেয়ারের দাম না বেড়ে উল্টো কমে গেলে এর সাথে মাস্কের প্রস্তাবিত দামের ব্যবধান বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে তার মনে হতে থাকে যে, তিনি ঠকে গেছেন। এমন ভাবনা থেকে নানা খোঁড়া অজুহাত দেখিয়ে তিনি টুইটার কেনার চুক্তি থেকে সটকে পড়ার চেষ্টা করছেন বলে বিশ্লেষকদের সন্দেহ।
উল্লেখ, টুইটার অধিগ্রহণের চুক্তির কিছুদিন যেতে না যেতেই মাস্ক অভিযোগ তুলেন, টুইটারে বিপুল সংখ্যক ভুয়া একাউন্ট রয়েছে, আর তা কোম্পানি ঘোষিত সংখ্যার চেয়ে অনেক বেশি। এই অভিযোগ তুলে ধরেই তিনি চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন।
মাস্কের আইনজীবী বলেছেন, টুইটার কর্তৃপক্ষ ভুয়া একাউন্টসহ অন্যান্য তথ্য-উপাত্ত দিয়ে সহযোগিতা করছে না।

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.