মেঘনা ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের বিপজ্জনক যাত্রা

পুঁজিবাজারে সম্প্রতি তালিকাভুক্ত মেঘনা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের শেয়ারের দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়েই চলেছে। একইসাথে বাড়ছে কোম্পানিটির শেয়ারটির মূল্য-আয় অনুপাত (পিই রেশিও)। ইতোমধ্যে এর পিই রেশিও ৩০০ ছাড়িয়ে গেছে। বিনিয়োগকারীদের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে শেয়ারের এই মূল্যস্তর।
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির পর গত ৬ জুন থেকে ১০ টাকা অবিহিত মূল্যে বাজারে শেয়ার লেনদেন শুরু করে কোম্পানিটি। কিন্তু লেনদেন শুরুর একমাস না যেতেই কোম্পানিটির শেয়ারের দাম অস্বাভাবিকভাবে প্রায় ৫৭৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।
সোমবার (৪ জুলাই) মেঘনা ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারদর ৫ দশমিক ৭২ শতাংশ বা ৩ টাকা ১০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৫৭ টাকা ৩০ পয়সায় লেনদেন হয়েছে, যার সমাপনী দরও ছিল একই।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
এদিকে ডিএসইর দেয়া সূত্রে দেখা যায় মূল্য আয় অনুপাতে (পিই রেশিও) কোম্পানিটির শেয়ারদর একটি বিপদজনক অবস্থানে পৌছে গেছে।

মেঘনা ইন্স্যুরেন্সের সর্বশেষ নিরীক্ষিত প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির মূল্য অনুপাত আয় ৩০১ দশমিক ৫৮। অন্যদিকে প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা ইপিএস অনুসারে কোম্পানিটির শেয়ারের পিই রেশিও দাঁড়িয়েছে ৬৩ দশমিক ২।

বিশ্লেষকরা পিই রেশিওকে বিনিয়োগের জন্য বিপজ্জনক মনে করছেন। তাদের বক্তব্য, নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির বিধি অনুসারে কোনো কোম্পানির শেয়ারের পিই রেশিও ৪০ অতিক্রম করলে সেই শেয়ার কেনার জন্য ঋণ (মার্জি ঋণ) দিতে পারে না ব্রোকারহাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংকগুলো। এ থেকে একটি বিষয় স্পষ্ট যে, ৪০ এর পিই রেশিওকে নিয়ন্ত্রক সংস্থাও ঝুঁকিপূর্ণ মনে করে। সে বিবেচনায় মেঘনা ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের এই মূল্যস্তর অবশ্যই বিপজ্জনক।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...