যুদ্ধ-সক্ষমতা বাড়ানোর নির্দেশ কিমের

শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন তার দেশের শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক শেষ করেছেন এবং যুদ্ধ-সক্ষমতা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি পুরো সামরিক বাহিনীকে সর্বাত্মকভাবে যুদ্ধ সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য আহ্বান জানান। তিনি বলেছেন, শত্রুর যেকোনো তৎপরতা বানচাল ও দেশের মর্যাদা রক্ষার জন্য শক্তিশালী সক্ষমতা থাকা দরকার।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা কেসিএনএ’র খবর অনুসারে, কিম জং উন তিন দিনব্যাপী ম্যারাথন বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে শীর্ষ কর্মকর্তারা একমত হন যে, দেশের যুদ্ধ সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ‘সামরিক নিশ্চয়তা’ দিতে হবে। বৈঠকে বিষয়টি তারা অনুমোদন করেছেন। খবর- পার্সটুডের

দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকা সম্প্রতি সামরিক মহড়ার মাধ্যমে উত্তর কোরিয়াকে শক্তি প্রদর্শন করেছে। এরপর পিয়ংইয়ং এই বৈঠক করলো। চার বছর আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়া প্রথমবারের মতো যৌথ মহড়া চালিয়েছে।

তিন দিনের বৈঠকে উত্তর কোরিয়া তার যুদ্ধ পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনে যা অনেকটা দুর্লভ ব্যাপার। এ সম্পর্কে কেসিএএনএ বলেছে, শীর্ষ নেতৃত্ব ফ্রন্টলাইন ইউনিটের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সামরিক কর্ম-পরিকল্পনাসহ অপারেশনাল ডিউটি জোরদার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

অর্থসূচক/এএইচআর

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.