সবার আবাসন নিশ্চিতে সহজ শর্তে ঋণ দাবি

0
96
housing fair
রিহ্যাব মেলা-চট্টগ্রাম (ফাইল ছবি)
housing fair
রিহ্যাব মেলা-চট্টগ্রাম (ফাইল ছবি)

ব্যাংক ঋণের উচ্চ সুদ এবং ভূমির দাম মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধির কারণে আবাসন শিল্প এখনো মধ্যম আয়ের মানুষদের কাছে পৌঁছাতে পারেনি। তাছাড়া অনুন্নত যোগাযোগ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার পাশাপাশি গ্যাস ও বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে না পারায় এ শিল্প বিকশিত হতে পারছে না।

বুধবার চট্টগ্রাম ক্লাবে রিহ্যাব- প্রথম আলো আয়োজিত ‘বাংলাদেশ আবাসন শিল্পের গতি প্রকৃতি এবং উন্নয়ন সম্ভাবনা’ বিষয়ক এক গোলটেবিল বৈঠকে এ অভিমত দেন বক্তারা।

এতে উপস্থিত ছিলেন- চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) চেয়ারম্যান আবদুচ সালাম, এফবিসিসিআই’র পরিচালক এম এ সালাম, চট্টগ্রাম চেম্বারের সভাপতি মাহবুবুল আলম, রিহ্যাবের অস্থায়ী সভাপতি রবিউল হক, চট্টগ্রাম বিজিএমইএ’র প্রথম সহ সভাপতি নাসিউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান স্থপতি মনঞ্জুর খুরশেদ আলম, স্থপতি তসলিম উদ্দিন চৌধুরী, ডা. মঈনুল ইসলাম মাহমুদ, ওহায়িদ মালিক, স্থপতি এস এম আবু সুফিয়ান, স্থপতি দেলোয়ার হোসেন ও আবুল কাইয়ুম চৌধুরী।

তারা বলেন, জনসংখ্যার তুলনায় আমাদের ভূমি কম থাকায় এই ছোট্ট ভূমি কাজে লাগিয়ে আমাদের ১৬ কোটি মানুষের আবাসন নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য সরকারকে সহজ শর্তে ঋণ দেওয়ার পাশাপাশি যোগোযোগ ব্যবস্থা উন্নত করতে হবে।

এছাড়া আবাসন প্রতিষ্ঠানগুলো অতি মুনাফা ও প্রতারণার কারণে জনমনে যে নেতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে তা দূরীকরণে এ শিল্পে জড়িত সবাইকে সচেতন হতে হবে বলেও মনে করনে তারা।

সিডিএ’র চেয়ারম্যান আবদুচ সালাম বলেন, সরকারের ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নে চট্টগ্রামকে উন্নয়নের যে পরিকল্পনা করছে তা বাস্তবায়নের জন্য আবাসন শিল্পের ভূমিকা জরুরি।

আবাসন নিশ্চিত না করে নগর উন্নয়ন করা হলে সে উন্নয়ন কোনো কাজে আসবে না বলেও তিনি মনে করেন ।

রিহ্যাবের অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট রবিউল হক বলেন, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো দিন দিন সহযোগিতার বদলে আবাসন প্রতিষ্ঠানের প্রতিযোগী হয়ে ওঠছে। ফলে এ শিল্পের সাথে জড়িত ব্যবসায়ীদেরও মনে করতে হবে যে এটি শুধু ব্যবসা নয়, সামাজিক দায়িত্বও বটে।

এমএস/সাকি