বুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) বিভিন্ন বিভাগে ২০২০-২১ শিক্ষা পঞ্জিকায় প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। এবার মোট পাসের হার ৩৩ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ৫ হাজার ৯৪৪ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ১ হাজার ৯৮০ জন ভর্তির জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ও অপেক্ষমাণ তালিকায় স্থান পেয়েছেন। তাদের মধ্য থেকে যাচাই-বাছাইয়ের পর ১ হাজার ২১৫ জন বুয়েটে ভর্তির সুযোগ পাবেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়টির ওয়েবসাইটে ও নোটিশ বোর্ডে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়।

প্রকৌশল এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা (ইউআরপি) বিভাগে প্রথম হয়েছেন বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজের শিক্ষার্থী মেফতাউল আলম সিয়াম। এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান অনুষদের ভর্তি পরীক্ষায়ও প্রথম হন তিনি। স্থাপত্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন নাবিলা তাবাসসুম। শুধু লিখিত পরীক্ষার প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে ভর্তিযোগ্য প্রার্থীদের মেধাতালিকা তৈরি করেছে বুয়েট।

গত ২০ ও ২১ অক্টোবর বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার প্রাক-নির্বাচনি পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। সেই পরীক্ষার ফলে প্রথম ছয় হাজার জন লিখিত পরীক্ষার জন্য মনোনীত হন। গত ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত লিখিত পরীক্ষায় ছয় জন প্রার্থী অনুপস্থিত ছিলেন।

বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার লিখিত পর্ব হয় দুটি গ্রুপে। ‘ক’ গ্রুপে ছিল প্রকৌশল বিভাগ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ। ‘খ’ গ্রুপে প্রকৌশল বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের পাশাপাশি স্থাপত্য বিভাগ। প্রাক-নির্বাচনি পর্বে ‘ক’ ও ‘খ’ উভয় গ্রুপের জন্যই গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন বিষয়ের ওপর ১০০ নম্বরের বহুনির্বাচনি পরীক্ষা হয়। লিখিত পর্বে ‘ক’ গ্রুপের জন্য ৪০০ এবং ‘খ’ গ্রুপের জন্য ৬৫০ নম্বরের পরীক্ষা হয়। এক্ষেত্রে ‘ক’ গ্রুপের পরীক্ষা হয় গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন বিষয়ের ওপর। আর ‘খ’ গ্রুপে গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়নের পাশাপাশি মুক্তহস্তে অঙ্কন এবং দৃষ্টিগত ও স্থানিক ধীশক্তি বিষয়ের ওপর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

বুয়েটে এবারের শিক্ষাবর্ষে মোট আসন ১ হাজার ২১৫টি। প্রকৌশল বিভাগ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মোট আসন ১ হাজার ১৫৫টি (তিনটি সংরক্ষিত আসনসহ) আর স্থাপত্য বিভাগের জন্য আসন ৬০টি (১টি সংরক্ষিত আসনসহ)।

প্রকাশিত ফলে স্থাপত্য বিভাগে ভর্তির জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ৬০ জন আর অপেক্ষমাণ তালিকায় আছেন ১২০ জন। প্রকৌশল বিভাগ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগে ভর্তির জন্য ১ হাজার ১৫৫ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন, অপেক্ষমাণ তালিকায় আছেন ৬৪৫ জন।

অর্থসূচক/এমএস