ইউরোপে করোনার নতুন ঢেউ, উদ্বিগ্ন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ইউরোপে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের নতুন ঢেউয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘অত্যন্ত উদ্বিগ্ন’। সংস্থার আঞ্চলিক পরিচালক ড.হ্যানস ক্লুগ বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেছেন, জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেওয়া না হলে আগামী বছরের মার্চের মধ্যে এই অঞ্চলের প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ করোনায় মারা যেতে পারে। এই জরুরি পদক্ষেপের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা।

ড.ক্লুগ জানিয়েছেন, সংক্রমণ বাড়ার পেছনে যে বিষয়গুলো কাজ করছে সেগুলো হচ্ছে,- শীত মৌসুম, টিকা দেওয়ার কম হার এবং অতিসংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। টিকা দেওয়ার হার বাড়ানো, জনস্বাস্থ্যমূলক মৌলিক পদক্ষেপ এবং নতুন চিকিৎসা ব্যবস্থা সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে কাজ করতে পারে। তবে এ ক্ষেত্রে টিকা বাধ্যতামূলক করা প্রধান পদক্ষেপ হতে পারে। অবশ্য এটি করা সময় সাপেক্ষ ব্যাপার এবং এটি নিয়ে সামাজিক ও আইনি বিতর্ক রয়েছে।

তিনি বলেছেন, ‘কোভিড-১৯ আবারও আমাদের অঞ্চলে মৃত্যুর প্রথম কারণ হয়ে গেছে। আমরা জানি এটি মোকাবিলায় কী করতে হবে।’

সম্প্রতি ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে করোনার সংক্রমণ দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে। এর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে অস্ট্রিয়া ও নেদারল্যান্ডস। সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে লকডাউন ঘোষণা করেছে অস্ট্রিয়া। বিধিনিষেধ আরোপ করেছে নেদারল্যান্ডস, স্লোভাকিয়া ও চেক প্রজাতন্ত্র।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •