বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, বাড়তে পারে রাতের তাপমাত্রা

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে, শক্তিশালী হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে আকাশ কিছুটা মেঘাচ্ছন্ন হতে পারে। তবে আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

বুধবার (১০ নভেম্বর) রাতে আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘হেমন্তকালে সাধারণত এ ধরনের আবহাওয়াই থাকে। দিনের বেলা নাতিশীতোষ্ণ আর রাতে কখনও তাপমাত্রা বেশি, আবার কখনও কখনও কমে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে যেতে পারে।’

আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসেও বলা হয়েছে— লঘুচাপ থেকে নভেম্বর মাসে এক বা দুইটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। এরমধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। এছাড়া কমতে শুরু করবে তাপমাত্রা।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ফেনীতে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আর সর্বনিম্ন ছিল তেতুলিয়ায় ১৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বিভাগীয় শহরগুলোর মধ্যে ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১ দশমিক ৬, ময়মনসিংহে ৩১ দশমিক ৩, চট্টগ্রামে ৩২ দশমিক ৫, সিলেটে ৩১ দশমিক ৯, রাজশাহীতে ৩০ দশমিক ৮, রংপুরে ৩১, খুলনায় ৩১ দশমিক ৮এবং বরিশালে ৩১ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও এর আশেপাশের এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে এবং বর্তমানে এটি দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর এবং দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সুস্পষ্ট লঘুচাপ আকারে অবস্থান করছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও আশেপাশের এলাকায় অবস্থান করছে। সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশের রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

অর্থসূচক/আরএমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...