প্রবৃদ্ধির আশা ৭ দশমিক ৩ শতাংশ

বাজেট ২০১৪-১৫

0
90

 

muhit-budgetআগামি ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেটে জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ। যা চলতি অর্থবছরের বাজেটে ছিল ৭ দশমিক ২ শতাংশ। যদিও চলতি অর্থবছরের প্রাথমিক হিসেবে এখন পর্যন্ত ৬ দশমিক ১২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে বলে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো জানিয়েয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সংসদ অধিবেশনে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন শুরু করেন অর্থমন্ত্রী। এ সময় তিনি আগামি অর্থবছরের প্রবৃদ্ধির এ লক্ষ্যমাত্রার প্রস্তাব করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সহায়ক মুদ্রানীতি ও রাজস্ব সুসংহতকরণের কারণে গত বছরের শেষ ভাগ হতে বিশ্ব অর্থনীতিতে, বিশেষ করে, উন্নত দেশসমূহের অর্থনীতিতে ইতিবাচক পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এসব দেশে সামগ্রিক চাহিদার উন্নতি হওয়ায় একদিকে যেমন বেকারত্ব কমেছে, তেমনি অন্যদিকে ভোক্তা ও বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরে এসেছে। যার ফলে ভোগ ও বিনিয়োগে উৎসাহব্যঞ্জক অগ্রগতি পরিলক্ষিত হচ্ছে। সামগ্রিকভাবে, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও ইউরো অঞ্চলের অর্থনীতি পুনরায় সুদৃঢ় অবস্থানে প্রত্যাবর্তন করতে শুরু করেছে। যার প্রেক্ষিতে আইএমএফ এর সর্বশেষ পূর্বাভাস অনুযায়ী ২০১৪ ও ২০১৫ সালে বিশ্ব অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি দাঁড়াবে যথাক্রমে ৩.৬ ও ৩.৯ শতাংশে। উন্নত দেশসমূহের ক্ষেত্রে এ প্রবৃদ্ধি হবে যথাক্রমে ২.২ ও ২.৩ শতাংশ। অন্যদিকে, উন্নয়নশীল এশীয় দেশসমূহে প্রবৃদ্ধি দাঁড়াবে যথাক্রমে ৬.৭ ও ৬.৮ শতাংশে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব অর্থনীতির শ্লথগতির মধ্যেও আমরা সন্তোষজনক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে পেরেছি। গত অর্থবছরের দ্বিতীয় ভাগে হরতাল অবরোধ ও রাজনৈতিক অস্থিরতা থাকা সত্ত্বেও আমরা ৬.০১ শতাংশ (২০০৫-০৬ ভিত্তিবছর) জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। এর পেছনে শিল্পখাতে প্রায় ১০.০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। অন্যদিকে, প্রতিকূল আবহাওয়া ও শস্যমূল্য কম থাকায় কৃষিখাতে প্রবৃদ্ধি কিছুটা কম হয়েছে। বনজ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি হলেও শস্যখাতে অগ্রগতি হয়েছে তুলনামূলকভাবে কম। পাশাপাশি, হরতাল, অবরোধ ও রাজনৈতিক সহিংসতার কারণে সরবরাহ ব্যবস্থা বিঘ্নিত হওয়ায় সেবা খাতে প্রবৃদ্ধি আশানুরূপ ছিল না। চাহিদার দিক থেকে বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, প্রবাস আয়ের কারণে ব্যক্তিখাতে ভোগব্যয় বাড়লেও বিনিয়োগ বেশি বাড়েনি। এ তুলনায় সরকারি খাতে বিনিয়োগ বেড়েছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। অপরদিকে, বৈদেশিক বাণিজ্যের বেলায় রপ্তানি বাড়লেও আমদানি ততটা বাড়েনি।

এদিকে, ২০১২-১৩ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি হয়েছিল ৬ দশমিক ০৩, ২০১১-১২ অর্থবছরে ৬ দশমিক ২৩, ২০১০-১১ অর্থবছরে হয়েছিল ৬ দশমিক ৭১ এবং ২০০৯-১০ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির হার ছিল ৬ দশমিক ০৭।

এইচকেবি/