যে পথ নবীজি দেখিয়ে গেছেন, সকলেই যেন সেই পথেই চলি: মেয়র তাপস

যে পথ প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) দেখিয়েছেন সে পথেই সবাইকে চলার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। বুধবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় নগরীর মেয়র সাঈদ খোকন সামাজিক অনুষ্ঠান কেন্দ্রে (কমিউনিটি সেন্টার) পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উপলক্ষে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক স্থায়ী কমিটি আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস এই আহ্বান জানান।

শেখ তাপস বলেন, ‘নবীজির একজন নগণ্য উম্মত হিসেবে আমি সবার কাছে নিবেদন করতে চাই, নবীজির আদর্শ, নবীজির চিন্তা-চেতনা, শিক্ষা-দীক্ষা যতটা ধারণ করতে পারব, আমরা ততটাই নবীজির ভালোবাসা পাবো। যার বিনিময়ে হাশরের ময়দানে তিনি আমাদেরকে বেহেশতের পথ দেখাবেন। তাই আমরা সকলেই যেন সেই পথেই চলি, যে পথ প্রিয় নবী আমাদেরকে দেখিয়েছেন।’

মেয়র শেখ তাপস আগামী বছর হতে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী আরও বড় পরিসরে আয়োজন করা হবে বলে ঘোষণা দেন।

করপোরেশনের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বাবুলের সঞ্চালনায় আয়োজনে ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহম্মদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আহম্মেদ মন্নাফি, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, ইমাম ওলামা ঐক্য পরিষদের সভাপতি মাওলানা মুফতি মোতাহার উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ লেয়াকত হোসাইন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম ও খতিব মওলানা নাজির মাহমুদ, ধানমন্ডির বাইতুন নূর জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফেজ মওলানা জামাল উদ্দিন, গ্রীন রোড জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা কারী মাহবুবুর রহমান, চকবাজার শাহী জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মুফতি মিনহাজ উদ্দিন, মুফতি হেদায়েত উল্লাহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। ইসলামে কোনো ধরনের সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, অরাজকতার স্থান নেই। যারা ইসলামের নামে মানুষ হত্যা, মানুষের বাড়িঘরে আগুন দেয়, নৈরাজ্য সৃষ্টি করে, প্রকৃতপক্ষে তারা ইসলাম হতে যোজন যোজন দূরে অবস্থান করছেন।

করপোরেশনের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী আয়োজন করায় বক্তরা দক্ষিণ সিটির মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে ধন্যবাদ জানান।

অর্থসূচক/এমএস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •