স্বীকৃতি ছাড়া সুখে আছে সিল্যান্ডবাসী

0
230
sealand
সিল্যান্ড (ছবি-ইন্টারনেট)
sealand
সিল্যান্ড (ছবি-ইন্টারনেট)

স্বীকৃতি পেলে এটাই হত পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট রাষ্ট্র। কিন্তু স্বীকৃতি নেই তো কি হয়েছে? রাজা-রাণী নিয়ে বেশ সুখেই আছে সিল্যান্ড বাসী। যুক্তরাজ্যের উপকূলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের দুর্গতে গঠিত এই ক্ষুদ্র দেশটির আছে নিজস্ব মুদ্রা থেকে ফুটবল টিম পর্যন্ত। সাগরে চিংড়ি শিকার করে দিব্যি ভালো আছেন দেশটির অধিবাসীরা। খবর ডেইলি মেইলের।

রাণী এলিজাবেথের শাসনে বিরক্ত হয়ে ১৯৬৬ সালে রয় বেটস নামের এক জেলে গোড়াপত্তন করেন এই দেশটির। এক বছর পরেই ২২ জন অধিবাসী নিয়ে স্বাধীনতা ঘোষণা করে সিল্যান্ড এবং বেটস হন নতুন দেশটির রাজা। ব্রিটিশ সরকার অবশ্য এখনও পর্যন্ত আমলে নেয়নি এই উৎপীড়ন। তাই রাজার শাসনে বেশ ভালোই দিন কাটাচ্ছে সিল্যান্ডবাসী। কোন কিছুর প্রয়োজন পড়েলে ডাঙ্গায় মানে যুক্তরাজ্যের মূল ভূমিই তাদের একমাত্র ভরসা।

sealand
সিল্যান্ড ডলার ও স্ট্যাম্প

জলবেস্টিত দুর্গ দেশটির আয়তন মাত্র ৫২৯০ বর্গ ফুট। এর রয়েছে নিজস্ব মুদ্রা, যা সিল্যান্ড ডলার নামে পরিচিত। আরও আছে নিজস্ব পোস্ট স্ট্যাম্প ও ফুটবল দল।

২০১২ সালে মারা যান রাজা বেটস। এরপর বিদ্যমান তন্ত্র অনুসারে রাজা হন তার ছেলে মাইকেল। নতুন রাজা দাবি করেছেন, জার্মানি এবং ফ্রান্স ইতোমধ্যেই স্বীকৃতি দিয়েছে সী-ল্যান্ডেকে, যদিও এর কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। তিনি জানান, স্বাধীনতাকামী স্কটিশরা সিল্যান্ড থেকে অণুপ্রেরণা নিতে পারে। যদি এমনটি হয় তবে হয়তো স্বীকৃতি মিলতে পারে সিল্যান্ডের।