ডিএসইতে ৪ ও সিএসইতে ১৭৬ শতাংশ লেনদেন বেড়েছে

0
79
DSE-CSE
dse-cse logo

দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে বুধবার বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। তবে সূচকের পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৪ শতাংশ। আর সিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১৭৬ শতাংশ।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আগের দিনের তুলনায় বুধবার লেনদেন বেড়েছে ১৬ কোটি ৩২ লাখ টাকার শেয়ার। এই দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪০৮ কোটি ৬০ লাখ টাকার শেয়ার। ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নিয়েছে ২৯৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। দর বাড়ার তালিকায় রয়েছে ৭৪টি কোম্পানির শেয়ার। আর দর কমার তালিকায় রয়েছে ২০১টি কোম্পানির শেয়ার। এছাড়া দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি কোম্পানির শেয়ারের।

ডিএসইএক্স বা প্রধান সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৪০১ পয়েন্টে। আর ডিএসইএস অবস্থান করছে ১ হাজার ৮ পয়েন্টে। এই সূচক ৫ পয়েন্ট বেড়েছে। এছাড়া ডিএস৩০ সূচক দশমিক ২৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬২৫ পয়েন্টে।

টাকার পরিমাণে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানির তালিকায় রয়েছে- গ্রামীণফোন, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড, বিএসআরএম স্টিলস, এমজেএলবিডি, মেঘনা পেট্রোলিয়াম, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট, স্কয়ার ফার্মা, মিথুন নিটিং, ডেল্টা লাইফ এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলস কোম্পানি লিমিটেড।

আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বুধবার ৪৪ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন বেড়েছে ।এই দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৬৯ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২২১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর দর বেড়েছে ৪৫টির, কমেছে ১৫১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টি কোম্পানির শেয়ার দর।

এ দিন সিএসই সার্বিক সূচক ৬১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৫৮৭ পয়েন্টে।

অর্থসূচক/এমআরবি/