সরকার চাইলে নির্বাচনপ্রক্রিয়ায় সহযোগিতা করবে জাতিসংঘ

বাংলাদেশ সরকার চাইলে নির্বাচনপ্রক্রিয়ায় জাতিসংঘ সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো।

আজ রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে আয়োজিত ‘ডিক্যাব টক’ অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এমন সময় জাতিসংঘ আবাসিক প্রতিনিধি এ কথা বলেছেন, যখন বাংলাদেশের পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠন এবং নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে।

ডিপ্লোমেটিক করেসপনডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ডিক্যাব) আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে আলোচিত-সমালোচিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়েও কথা বলেন তিনি।

মিয়া সেপ্পো বলেন, কোনো দেশের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করে না জাতিসংঘ। তবে কোনো দেশের সরকার সহায়তা চাইলে তা দিয়ে থাকে। বাংলাদেশ সরকার আগামী জাতীয় নির্বাচনে সহযোগিতা চাইলে তা দেবে জাতিসংঘ।

তিনি আরও বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহার বন্ধে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি আমরা। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও নারীর প্রতি সহিংসতা নিয়ে আমাদের উদ্বেগ রয়েছে।

মিয়ানমার ও আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে অপর এক প্রশ্নে মিয়া সেপ্পো বলেন, একটি জটিল পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে চলছে মিয়ানমার ও আফগানিস্তান। জাতিসংঘের আসন্ন সাধারণ অধিবেশনে দেশ দুটির প্রতিনিধিত্ব কে করবে, সেটি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

বাংলাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া প্রসঙ্গে মিয়া সেপ্পো বলেন, বাংলাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার জন্য সরকারকে আমরা স্বাগত জানাই। এর মধ্যে দিয়ে প্রান্তিক শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ডিকাব প্রেসিডেন্ট পান্থ রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মঈনুদ্দিন।

অর্থসূচক/কেএসআর