দিনাজপুরে অবরোধে বিএনপির সাধারণ সম্পাদকসহ আহত ৬২

0
85
dinajpur

dinajpurঅবরোধের শেষ দিনে দিনাজপুর সরকারি কলেজ মোড়ে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট, আওয়ামী লীগ ও পুলিশের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কমপক্ষে ৫০ রাউন্ড রাবার বুলেট ও  ৩৩ রাউন্ড টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে।

জানা যায়, ত্রিমুখী সংর্ঘষে দিনাজপুর জেলা বিএনপির সাধারণ-সম্পাদক মুকুর চৌধুরীসহ কমপক্ষে ৬২ জন আহত হয়েছে। এ সময় ভাংচুর করা হয়েছে ৫ টি মোটর সাইকেল ও ৮ টি দোকান।  ভাংচুরের ছবি তুলতে গিয়ে চ্যানেল আই’র ক্যামেরাম্যান লাঞ্চিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার সময় এই সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে।

অবরোধের শেষ দিনে বেলা ১১টায় শহরের সইহারী এলাকায় দিনাজপুর সরকারি কলেজ মোড়ে ১৮ দলের নেতাকর্মীরা রাস্তা অবরোধ করে সমাবেশ করছিল। সমাবেশ চলাকালে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে হঠাৎ যুবলীগ-ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী হাসুয়া, রামদা, লাঠিসোটা সহ ১৮ দলের সমাবেশের দিকে মিছিল নিয়ে এগিয়ে যায়। খবর পেয়ে অবরোধকারী নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের প্রতিহত করতে তাদের ধাওয়া করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।  সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলাকালে গোটা শহরজুড়ে এক ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। মানুষ দোকান বন্ধ করে দেয় ও পথচারীরা নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যায়। সরকারী কলেজ কর্তৃপক্ষ সংঘর্ষের ঘটনায়  এইচএসসি টেষ্ট পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করেছে।

পুলিশের ছোড়া টিয়ার সেলে জেলা বিএনপির সাধারণ-সম্পাদক মুকুর চৌধুরী সহ ১৮ দলের  ৬২ নেতাকর্মী, পথচারী, মানুষ আহত হয়েছে।

এর আগে সকাল থেকে ১৮ দলের নেতাকর্মীরা দিনাজপুর-দশমাইল সহাসড়কে গাছের গুড়ি ফেলে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করে রাখায় সব ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিকেল ৩টার দিকে রাস্তা পরিষ্কার করায় যানবাহন চলাচল স্বভাবিক হয়েছে।

বর্তমানে শহরের বিভিন্ন মোড়ে ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে বিজিবিকে শহরে টহল দিতে দেখা গেছে।