অস্ট্রেলিয়া দলের কড়া সমালোচনা

ঘরের মাঠে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়াকে ১৩২ রানের সহজ লক্ষ্য দিয়েও বোলারদের নৈপূণ্যে ২৩ রানের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। নিজেদের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অজিদের হারানোর কীর্তি গড়ে স্বাগতিকরা। হারের পর অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশের জয় স্বাভাবিকভাবে নিলেও দেশটির সংবাদমাধ্যম ও সাধারণ মানুষরা এ জয় একদমই মানতে পারছেন না। কারণ, এত বছরের ইতিহাসে টি-টোয়েন্টিতে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়াকে হারাল বাংলাদেশ।

এরপর থেকেই অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যমের চোখে পড়েছে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার বাংলাদেশের কাছে এত কম লক্ষ্য তাড়া করতে নেমেও হারের পর অস্ট্রেলিয়ান সংবাদমাধ্যম নেমেছে কড়া সমালোচনায়। দ্য অস্ট্রেলিয়ান ম্যাচের প্রতিবেদনের শিরোনামে লিখেছে, ‘নতুন তলানিতে নেমেছে অস্ট্রেলিয়া!’

ম্যাচের প্রতিবেদনে লিখেছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর বাংলাদেশে এই সিরিজে খেলতে না আসা ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভ স্মিথ, অ্যারন ফিঞ্চরা যদি এ ভেবে শিহরিত থেকে থাকেন যে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর বাংলাদেশে অন্যরা আলো ছড়ালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তাদের (স্মিথ-ওয়ার্নার) জায়গা শঙ্কায় পড়ে যাবে, সে শঙ্কা আর নেই। এক মিচেল মার্শ ছাড়া দুই সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার কেউই যে ব্যাট হাতে আলো ছড়াতে পারেননি।

সিডনি মর্নিং হেরাল্ড ম্যাচের প্রতিবেদনে লিখেছে, ‘স্বাগতিক দলকে ৭ উইকেটে ১৩১ রানের গড়পড়তা এক স্কোরে বেঁধে ফেলেছে অস্ট্রেলিয়া, কিন্তু নিজেরা এরপর গড়পড়তার চেয়েও কিছুটা বাজে ব্যাটিং করে ম্যাচটা হেরে গেছে ২৩ রানে।’

অপরদিকে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া অবশ্য বাংলাদেশের এ জয়ে পিচের অবদানকেই বড় করে দেখায়নি। বাংলাদেশের স্পিনারদের সামলাতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া, এটিই তাদের চোখে অস্ট্রেলিয়ার হারের কারণ।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া লিখেছে, ‘শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের পিচ ধীর ছিল, কিন্তু একেবারে খেলার অসাধ্য ছিল না। এর মধ্যে স্পিনেই ৬ উইকেট হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ইনিংসের প্রথম ১৩ বলে ১১ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া পথ হারিয়েছে’

রাজধানীর মিরপুর শের ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এদিন টসে হেরে ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩১ রান সংগ্রহ করেছিল বাংলাদেশ। যেখানে মিরপুরের ধীরগতির উইকেটে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৬ রানের ইনিংস খেলেন সাকিব আল হাসান।

অর্থসূচক/এএইচআর