পুঁজিবাজার সর্বাত্মক লকডাউনেও চালু থাকবে

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে পরবর্তী ৭ দিনের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনে যাচ্ছে দেশ। সরকার অবশ্য এটিকে কঠোর বিধিনিষেধ বলছে। আজ বুধবার (৩০ জুন) সরকারের মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ থেকে এই বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে।

প্রজ্ঞাপন অনুসারে কঠোর বিধিনিষেধেও ব্যাংক খোলা থাকবে। আর ব্যাংক খোলা থাকলে যে পুঁজিবাজারও খোলা থাকবে তা আগেই জানিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। তাই সর্বাত্মক লকডাউন বা কঠোর বিধিনিষেধেও পুঁজিবাজারে লেনদেন চালু থাকবে।

তবে কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালে পুঁজিবাজারে লেনদেনের সময়সূচি কী হবে তা নির্ভর করবে ব্যাংক লেনদেনের সময়সূচির উপর। এই সময়সূচি এখনো জানা যায়নি।

কঠোর বিধি নিষেধ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনে ব্যাংকে লেনদেনের সময়সীমা কী হবে তা উল্লেখ করা হয়নি। এটি ব্যাংকিং খাতের রেগুলেটর বাংলাদেশ ব্যাংকের উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ব্যাংকিং সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারি করবে।

আজ বিকালের মধ্যেই বাংলাদেশ ব্যাংক কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালীন সময়ে ব্যাংক লেনদেনের সময় চূড়ান্ত করবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, কঠোর বিধিনিষেধে ব্যাংক খোলা থাকলেও লেনদেনের সময় কমতে পারে। এছাড়া একই দিনে সব ব্যাংকে সব শাখা খোলা না রেখে সীমিত পরিসরে তা খোলা রাখা হতে পারে। তবে কোন বিকল্পটি চূড়ান্ত হবে তা বিকালের মধ্যেই জানা যাবে। আর ওই সময়সূচি জানার পর বিএসইসি পুঁজিবাজারে লেনদেনের সময়সূচি চূড়ান্ত করবে।

এদিকে ব্যাংক ক্লোজিংয়ের কারণে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) ব্যাংক হলিডে। তাই কোনো ব্যাংকে লেনদেন হবে না কাল। একই কারণ পুঁজিবাজারও বন্ধ থাকবে কাল।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...