আজ থেকে বিচ্ছিন্ন হচ্ছে রাজধানী

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে রাজধানী ঢাকাকে সুরক্ষিত রাখতে এর পার্শ্ববর্তী সাত জেলায় কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে ঢাকা থেকে দেশের বিভিন্ন রুটে চলাচলরত দূরপাল্লার কোনও গণপরিবহন চলাচল করতে পারবে না। লঞ্চ ও ট্রেন চলাচলও নিয়ন্ত্রিত থাকবে। কার্যত দেশের সঙ্গে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন থাকবে রাজধানী ঢাকা।

আজ মঙ্গলবার (২২ জুন) সকাল ৬টা থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত এই লকডাউন চলবে। গতকাল সোমবার (২১ জুন) বিকেলে জরুরি প্রেস ব্রিফিংয়ে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

লকডাউন ঘোষিত জেলাগুলো হচ্ছে- নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জ।
বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ গণমাধ্যমকে বলেন, সরকার ঢাকা বিভাগের সাত জেলায় লকডাউন ঘোষণা করেছে। এই সাত জেলার ওপর দিয়েই দূরপাল্লার বাস চলাচল করে। যেহেতু লকডাউন তাই গাড়ি যেতে পারবে না। এজন্য দূরপাল্লার গাড়ি বন্ধ থাকবে।

এদিকে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউন ঘোষিত এলাকায় কোনও ট্রেন যাবে না। এজন্য কয়েকটি ট্রেনের যাত্রা সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া গাজীপুর জেলা লকডাউন থাকায় ওই জেলার সংশ্লিষ্ট স্টেশনগুলোতে ট্রেনের যাত্রা বিরতি বাতিল করা হয়েছে। সোমবার রেলওয়ের সহকারী চিফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্ট মো. আব্দুল আওয়াল সাক্ষরিত এক দফতরাদেশে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, লকডাউন সংশ্লিষ্ট সাত জেলায় লঞ্চ চলাচলের ওপরেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। নৌপথগুলো হচ্ছে- ঢাকা-মাদারীপুর, ঢাকা-মিরকাদিম/ মুন্সিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ মুন্সিগঞ্জ/চাঁদপুর/নড়িয়া, শিমুলিয়া (মুন্সীগঞ্জ) – বাংলাবাজার (মাদারীপুর)/মাঝিকান্দি (শরিয়তপুর), আরিচা (মানিকগঞ্জ)-কাজিরহাট, পাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) দৌলতদিয়া (রাজবাড়ী)। এই নৌপথসহ উল্লেখিত জেলার সংশ্লিষ্ট নৌপথে সব ধরণের যাত্রীবাহী নৌযানের (লঞ্চ/ স্পিডবোট/ ট্রলার/ অন্যান্য) বন্ধ থাকবে।

অর্থসূচক/কেএসআর