নড়াইলে ৭ দিনের কঠোর লকডাউন

নড়াইলে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় রোববার (২০ জুন) রাত ১২টা থেকে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। আজ রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভায় জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি এ ঘোষণা দেয়।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, সাত দিনের কঠোর লকডাউনে সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শপিংমল, রেস্তোরাঁ, মুদি দোকান, চায়ের দোকান বন্ধ থাকবে। তবে কাঁচা বাজার, মাছের বাজার ও ফলের দোকান প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। সব পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। লকডাউন চলাকালে সব ধরনের সাপ্তাহিক হাট/গরুর হাট বন্ধ থাকবে।

জেলার অভ্যন্তরে অথবা আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। এ ক্ষেত্রে থ্রি-হুইলারসহ সব যানবাহন বন্ধ থাকবে। অতি জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। জরুরি প্রয়োজনে চলাচলকারীদের অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে। জরুরি পরিষেবা, চিকিৎসাসেবা, কৃষিপণ্য, খাদ্য সরবরাহ ও সংগ্রহ, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ফায়ার সার্ভিস, টেলিফোন, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, মোবাইল ব্যাংকিং, ওষুধ শিল্প

সংশ্লিষ্ট যানবাহন, কর্মী ইত্যাদি এবং সরকার কর্তৃক ঘোষিত অন্যান্য জরুরি পরিষেবা এর আওতা বহির্ভূত থাকবে। এ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন- জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়, সিভিল সার্জন ডা. নাসিমা আক্তার, সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আব্দুস শাকুর, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ ফকরুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুমি মজুমদার, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া ইসলাম,

জেলা রেড ক্রিসেন্টের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইসমাইল হোসেন লিটন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র কাজী জহিরুল হক জহির, লোহাগগা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম হায়াতুজ্জামান, বঙ্গবন্ধু স্কোয়াডের সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।

অর্থসূচক/এমএস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •