দুই মাসে করোনায় সর্বনিম্ন আক্রান্ত ভারতে

ভারতে প্রায় দুই মাসের মধ্যে (৫৮ দিনে) সবচেয়ে কম করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায়। তবে এই সময়ে মৃত্যুর হার বেড়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ১ লাখ ২০ হাজার ৫২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর মারা গেছেন ৩ হাজার ৩৮০ জন। এর আগে দৈনিক মৃত্যুর হার ৩ হাজারের নিচে নেমে এসেছিল।

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৮৬ লাখ ৯৪ হাজার ৮৭৯ জনে। আর মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৪৪ হাজার ৮২ জনে।

আজ শনিবার (০৫ জুন) ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর তাদের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার (০৪ জুন) মৃত্যু ও শনাক্ত কিছুটা কমেছিল। ওইদিন ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ২ হাজার ৭১৩ জনের মৃত্যু এবং ১ লাখ ৩২ হাজার ৩৬৪ জন শনাক্ত হয়েছিলেন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ লাখ ৭ হাজার ৭১ জন।

দেশটির স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী—গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২০ লাখ ৮৪ হাজার ৪২১টি। এনিয়ে দেশটিতে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৬ কোটি ১১ লাখ ৭৪ হাজার ১৪২টি। একদিনে নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ৫ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ১ হাজার ৩৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে মহারাষ্ট্রে। এ রাজ্যে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ১৫২ জন। মৃত্যুর দিক থেকে মহারাষ্ট্রের পরই আছে তামিলনাড়ু। এ রাজ্যে ৪৬৩ জনের মৃত্যু এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ৬৫১ জন।

কর্নাটকে ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৬৮ জন। আর মারা গেছেন ৩৬৪ জন। এছাড়া কেরালায় মারা গেছেন ১৩৫ জন এবং শনাক্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ২২৯ জন। আর দিল্লিতে মৃত্যু হয়েছে ৫০ জনের এবং শনাক্ত হয়েছেন ৫২৩ জন।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে নতুন চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ বাড়ছে। এই সংক্রমণের জেরে বাড়ছে মৃত্যুও।

সূত্র: এনডিটিভি।

অর্থসূচক/কেএসআর