মার্জিন ঋণের সীমা বেড়েছে পুঁজিবাজারে

করোনা পরিস্থিতিজনিত আতঙ্কের বাজারে নীতিসমর্থন হিসেবে মার্জিন ঋণের (Margin Loan) সীমা বাড়িয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। আগামীকাল সোমবার (৫ এপ্রিল) এই সীমা কার্যকর হবে। আর পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত তা বহাল থাকবে।

নতুন সীমা অনুসারে, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৭ হাজার পয়েন্ট পর্যন্ত ১:০.৮ হিসেবে ঋণ দেওয়া যাবে। অর্থাৎ বিনিয়োগকারীর মূলধন ১০০ টাকা হলে তাকে শেয়ার কেনার জন্য ৮০ টাকা পর্যন্ত ঋণ দিতে পারবে সংশ্লিষ্ট ব্রোকারহাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংক।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম অর্থসূচককে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, বিনিয়োগকারী ও বাজারের স্বার্থে মার্জিন ঋণের সীমা বাড়ানোর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর ফলে বিনিয়োগকারীরা ফোর্সড সেল ঝক্কি এড়াতে পারবেন। অন্যদিকে অনেকের বিনিয়োগ সক্ষমতা বাড়বে। এটি বাজারকে স্থিতিশীল হতে কিছুটা হলেও সহায়তা করবে।

উল্লেখ, গত কয়েকদিনে হঠাৎ করে দেশে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি হয়েছে। সংক্রমণের সংখ্যায় একের পর এক রেকর্ড হচ্ছে। বেড়েছে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যাও। করোনা ভীতি এবং লেনদেন বন্ধের আতঙ্কে গত কয়েকদিন ধরে পুঁজিবাজার অস্থির। এর মধ্যে গতকাল সরকারের একাধিক মন্ত্রী লকডাউনের তথ্য জানালে আজ সোমবার (৪ এপ্রিল) বাজারে বড় দরপতন হয়। ডিএসইতে ৭৭ ভাগ কোম্পানি শেয়ারের দর হারায়। আর বিভিন্ন মূল্যসূচক কমে যায় ৩ থেকে ৪ শতাংশ। ব্যাপক দর পতনে বিপুল সংখ্যক বিনিয়োগকারী ফোর্সড সেলের হুমকীতে পড়েন। এই ফোসর্ড সেল এড়ানোর লক্ষ্যে মার্জিন ঋণের সীমা বাড়ানোর  সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •