‘সিসিটিভি ফুটেজ দেখে নাশকতাকারীদের চিহ্নিত করা হচ্ছে’

নাশকতাকারীদের চিহ্নিত করতে সিসিটিভি, বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ ও স্থিরচিত্র বিচার-বিশ্লেষণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম।

সোমবার (২৯ মার্চ) দুপুরে ডিবি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আসাকে কেন্দ্র করে গত কয়েকদিন ধরে বিক্ষোভ ও সহিংসতা হচ্ছে দেশে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে হেফাজতের কর্মীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ আহত হয়েছেন শতাধিক। প্রাণহানি ও জনগণের সম্পদ নষ্টের ঘটনাও ঘটেছে।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, হেফাজত ছাড়াও অন্যান্য গোষ্ঠী এ ধরনের হামলার সঙ্গে জড়িত। তারা হেফাজতের ঘাড়ে বন্দুক রেখে সহিংসতা চালাচ্ছে। নাশকতাকারীদের চিহ্নিত করতে সিসিটিভি, বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ ও স্থিরচিত্র বিচার-বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, যারা অনলাইনে নাশকতায় উসকানি দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। সম্প্রতি স্বাধীনতা দিবস কেন্দ্রিক যে সহিংসতা হচ্ছে এখানে অনলাইনে উসকানি দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হবে।

ডিএমপির একটি সূত্র জানিয়েছে, গত ২৫ মার্চ থেকে নাশকতার কারণে ডিএমপির বিভিন্ন থানায় পাঁচটি মামলা হয়েছে। আরও মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মামলাগুলো তদন্ত চলছে, ডিবিও মামলা তদন্ত করছে।

এদিকে শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররমে সংঘর্ষের ঘটনায় শনিবার (২৭ মার্চ) অজ্ঞাত ৫০০-৭০০ জনের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে।

মামলার বিবরণে উল্লেখ করা হয়েছে, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ প্রায় ১৩০০ রাউন্ড গুলি ছুড়েছে। তবে মামলায় কারও নাম বা রাজনৈতিক পরিচয় উল্লেখ করেনি পুলিশ। পুলিশের কয়েকজন সদস্য আহতের কথা উল্লেখ করা হয়েছে মামলায়।

অর্থসূচক/এমএস