জিতলেই সবাইকে আইফোন, চাঁদে পাঠানোর প্রতিশ্রুতি!

ভোটে জিতলেই সবার জন্য আইফোন, দামি গাড়ি এবং আরও অনেক কিছু রয়েছে উপহারের ঝুলিতে। তবে কেবল জাগতিক নয়, রীতিমতো মহাজাগতিক উপহারও রয়েছে ঝুলিতে। একেবারে চাঁদে একশো দিনের ভ্রমণের সুযোগ! এমনই গুচ্ছ গুচ্ছ ‘লার্জার দ্যান লাইফ’ উপহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এক ভোটপ্রার্থী। ভারতের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তামিলনাডু রাজ্যে নির্দল প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন তিনি।

ভোট আবহে রীতিমতো সরগরম ভারতের পাঁচটি রাজ্য। যার মধ্যে অন্যতম তামিলনাডু। এমনিতেই দক্ষিণের এই রাজ্যে বরাবরই দেখা গিয়েছে প্রার্থীরা ভোট বৈতরণী পার হতে নানা রকম উপহারের ‘টোপ’ দেন ভোটারদের। টিভি, ওয়াশিং মেশিন থেকে সোনাদানা- তালিকায় কী থাকে না! কিন্তু অন্য সব প্রার্থীকেই পিছনে ফেলে দিয়েছেন আর সর্বানন। কোনও দলের ব্যানারে নয়, এবারের নির্বাচনে তিনি দক্ষিণ মাদুরাই কেন্দ্রে লড়ছেন নির্দল প্রার্থী হিসেবে।

তার প্রতিশ্রুতির তালিকা রীতিমতো লম্বা। কয়েকটা আগেই বলা হয়েছে। আরও কয়েকটা বলা যাক। সুইমিং পুল-সহ তিনতলা বাড়ি, দামি গাড়ি, প্রতিটি বাড়ির জন্য ছোট আকারের হেলিকপ্টার, বাড়ির কাজ করার জন্য রোবট! এমনই আরও অনেক অনেক কিছু। স্বাভাবিক ভাবেই এমন অবিশ্বাস্য ও অভিনব প্রতিশ্রুতিতে সকলে বিস্মিত।

কিন্তু এত বেশি প্রতিশ্রুতির বন্যার আড়ালে রয়ে গিয়েছে আসল সত্য। ওই প্রার্থী আসলে সচেতন করতে চেয়েছেন ভোটারদের। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে সর্বানন জানিয়েছেন, আমাদের প্রথম সারির দলগুলি ক্ষমতায় আসার জন্য অনেক লোভনীয় প্রস্তাব দেন। তারপর ক্ষমতায় এলে মানুষকে ঠকান। দুঃখজনক ভাবে ভোটাররা এই লোভের ফাঁদে পা দেন। আমি এই সংস্কৃতির বিরুদ্ধে সকলকে সচেতন করে তুলতে চাই।

‘ডাস্টবিন’ চিহ্নে ভোটে দাঁড়ানো সর্বানন এভাবেই এক অভিনব বার্তা দিতে চেয়ে চমকে দিয়েছেন সকলকে। ভোটের ফল যাই হোক, মানুষকে সচেতন করে তুলতে চেয়েই এমন অভিনব প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

অর্থসূচক/কেএসআর