তামিমরা এলেন আর ফিরলেন, হলেন হোয়াইটওয়াশ

ক্রাইস্টচার্চে ব্যাটসম্যানরা ভালো করলেও ডানেডিনের ব্যাটিং ব্যর্থতার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে ওয়েলিংটনে। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অপরাজিত ৭৬ রানের পরও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৬৪ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। ফলে সিরিজের সবগুলো ম্যাচে হেরে হোয়াইটওয়াশ হলো তামিমরা।

জয়ের জন্য ৩১৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নামা বাংলাদেশের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি। তৃতীয় ওভারেই ম্যাট হেনরির বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তামিম। এক রানে অধিনায়ক ফিরে যাওয়ার খানিক পর এই পেসারকেই পুল করতে গিয়ে এক রানে বোল্টের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন সৌম্য সরকার।

এর একটু পর হেনরির তৃতীয় শিকার হয়ে বিদায় নেন লিটন দাস। বোল্টের অসাধারণ ক্যাচে ২১ রানে আউট হন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। শুরুর ধাক্কা সামলে নিতে অনেকটা সময় লড়াই করেছেন মুশফিকুর রহিম এবং মোহাম্মদ মিঠুন। যদিও সেটা খুব বেশি ফলপ্রসু হয়নি। দীর্ঘ সময় ধরে ধীরগতির ব্যাটিং করলেও শেষ পর্যন্ত জেমিসনকে লেগ সাইডে ছক্কা মারতে গিয়ে সাজঘরে ফেরেন মিঠুন। ৩৯ বলে ৬ রান করে ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ফিরলে ভাঙে তাঁদের ২২ রানের জুটি। ফলে পঞ্চাশের আগেই ৪ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বসে বাংলাদেশ।

মিঠুনের বিদায়ের পর প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছিলেন মাহমুদউল্লাহ ও মুশফিক। তবে জিমি নিশামের দুর্দান্ত বোলিংয়ে মাত্র ৫ রানের ব্যবধানে সাজঘরে ফেরে বাংলাদেশের ৩ ব্যাটসম্যান। নিশামের প্রথম বলে তুলে মারতে গিয়ে বোলারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ২১ রান করে ফেরেন মুশফিক। ওই ওভারের তৃতীয় বলে শূন্য রানে ফেরেন মেহেদী হাসান মিরাজ। নিশামের পরের ওভারে ৩ রান করে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটেন শেখ মেহেদী হাসান।

বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার দিনে দলের একমাত্র হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। কাইল জেমিসনের বলে চার মেরে ৬৪ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। এই সময়টায় তাঁকে কিছুটা সঙ্গ দিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। ২৪ বলে ৯ রান করেছিলেন তিনি। একপ্রান্তে মাহমুদউল্লাহ আক্রমণাত্বক ব্যাটিং করে হারের ব্যবধান কমালেও তাঁকে সঙ্গ দিতে পারেননি আর কেউ।

যদিও রুবেল হোসেন কিছুটা চেষ্টা করেছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত ২৮ বলে ৪ করে ফেরেন তিনি। এরপর নিজের তৃতীয় বলেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে মুস্তাফিজুর রহমান সাজঘরে ফিরলে বাংলাদেশ থামে ১৫৪ রানে। শেষ পর্যন্ত ৭৩ বলে ৭৬ রান করে অপরাজিত ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। নিউজিল্যান্ডের হয়ে নিশাম ৫টি আর ম্যাট হেনরি নিয়েছেন ৪ উইকেট।

এর আগে ব্যাটিং নেমে শুরুটা ভালো করতে না পারলেও ডেভন কনওয়ে এবং ড্যারেল মিচেলের সেঞ্চুরিতে ৬ উইকেটে ৩১৮ রানের পুঁজি পেয়েছিল নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশের হয়ে তিনটি উইকেট নিয়েছিলেন রুবেল আর একটি করে উইকেট নিয়েছিলেন মুস্তাফিজ, সৌম্য ‍ও তাসকিন।

 

অর্থসূচক/এএইচআর