অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা নিরাপদ: ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনার টিকা নিরাপদ বলে দাবি করেছেন ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক।

তিনি বলেন, ব্রিটিশ ওষুধ ও স্বাস্থ্যসেবা নিয়ন্ত্রক সংস্থা এমএইচআরএ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এবং ইএমএ—সবাই বিশ্বাস করে যে, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিরাপদ।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণের সঙ্গে রক্ত জমাট বাঁধার যোগসূত্র থাকার শঙ্কায় ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ টিকাটির ব্যবহার স্থগিত করার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) এ দাবি করলেন যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এদিকে সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, ইউরোপের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সি (ইএমএ) গতকাল মঙ্গলবার প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে, রক্ত জমাট বাঁধার সমস্যার সঙ্গে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার কোনো সম্পর্ক নেই।

এমন পরিপ্রেক্ষিতে ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জনগণকে যখনই সুযোগ আসবে তখনই টিকাগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের জনগণকে আশ্বস্ত করতে ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন, আমরা সব সময় এই টিকাগুলো গ্রহণের প্রভাব কী হয়, তা পর্যালোচনা করি। এবং আমরা জানি যে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা এই মুহূর্তে যুক্তরাজ্যে প্রাণ বাঁচাচ্ছে। তাই, যদি আপনার টিকা নেওয়ার ডাক পড়ে, নিয়ে নিন।

ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ব্যবহার স্থগিত করার পরিপ্রেক্ষিতে যুক্তরাজ্যের জনগণের মধ্যে টিকাগ্রহণের হার কমেছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিদিন প্রচুর মানুষ টিকা নিচ্ছেন’ এবং ‘টিকা নেওয়ার জন্য (মানুষের) ব্যাপক উৎসাহ রয়েছে’।

এদিকে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি কোভিড-১৯-এর টিকা নিয়ে বেশ দ্বিধায় পড়েছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর নেতারা। টিকাটির ব্যবহার স্থগিত করে সমালোচনারও সম্মুখীন হচ্ছে দেশগুলো।

ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ব্যবহার স্থগিত ঘোষণা করলেও বেলজিয়াম, পোল্যান্ড, চেক রিপাবলিক ও ইউক্রেন অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ব্যবহার চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

ইউরোপের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সি প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে, রক্ত জমাট বাঁধার সমস্যার সঙ্গে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার কোনো সম্পর্ক নেই। ফ্রান্স ও ইতালি এই বক্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছে।

তবে পরবর্তী পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল হাতে না পাওয়া পর্যন্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ব্যবহার স্থগিতই রাখবে বলে জানিয়েছে ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি ও স্পেন।

সূত্র: বিবিসি।

অর্থসূচক/কেএসআর