ফের নির্বাচনে লড়ার ঘোষণা ট্রাম্পের

মাসখানেক বিশেষ খবরে ছিলেন না তিনি। ২০ জানুয়ারি জো বাইডেনের শপথ নেওয়ার ঘণ্টাকয়েক আগে হেলিকপ্টারে চড়ে হোয়াইট হাউস ছেড়েছিলেন। তারপর আর টেলিভিশনের সামনে আসেননি তিনি। রোববার ফের স্বমূর্তিতে অবতীর্ণ হলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। জানিয়ে দিলেন, ২০২৪ সালে ফের প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়বেন তিনি।

রোববার আমেরিকার ওরল্যান্ডোয় কনসারভেটিভ পলিটিক্যাল অ্যাকশনের অনুষ্ঠান ছিল। রিপাবলিকানদের এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন ট্রাম্প। বক্তৃতায় প্রথমেই তিনি বলেন, নতুন দল তৈরি করার কোনো পরিকল্পনা তাঁর নেই। ট্রাম্প হেরে যাওয়ার পরে অনেকেই বলছিলেন, এরপর নতুন দল তৈরি করে ফের প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়াই শুরু করবেন সাবেক প্রেসিডেন্ট। কিন্তু ট্রাম্প এদিন বলেন, নতুন দলের প্রয়োজন নেই। কারণ, তাঁর দল আছে। তিনি রিপাবলিকান পার্টির হয়েই লড়াইয়ে নামবেন। এরপরেই পুরনো বক্তব্যে চলে যান ট্রাম্প। দাবি করেন, তৃতীয়বার ডেমোক্র্যাটদের হারানোর জন্য তিনি প্রস্তুত।

‘তৃতীয়বার’ শব্দটি গুরুত্বপূর্ণ। বহু সমালোচনার পরেও ট্রাম্প এদিন পরোক্ষে ফের দাবি করেছেন, নির্বাচনের ফলাফল পক্ষপাতদুষ্ট এবং তাতে কারচুপি হয়েছে। তিনি বিশ্বাস করেন, নির্বাচনে তিনি জিতেছেন। সে কারণেই তাঁর বক্তব্য ২০২৪ সালে তৃতীয়বার তিনি ডেমোক্র্যাটদের হারাবেন।

জো বাইডেনের প্রশাসনের বয়স মাত্র দেড় মাস। এদিন ট্রাম্প সেই সদ্য তৈরি হওয়া সরকারকে ব্যর্থ বলে ঘোষণা করেছেন। একই সঙ্গে জানিয়েছেন, তাঁর আমলে কত গুরুত্বপূর্ণ কাজ হয়েছে। ডেমোক্র্যাটদের পাশপাশি রিপাবলিকানদের একাংশেরও সমালোচনা করেছেন তিনি। একটি তালিকা সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন তিনি। সেখানে তাঁর বিরুদ্ধে মুখ খোলা রিপাবলিকানদের নাম ছিল। ইমপিচমেন্ট প্রস্তাবে যে রিপাবলিকানরা সমর্থন জানিয়েছিলেন, তাঁদেরও নাম ছিল। তালিকা পড়ে তিনি বলেন, এই নেতাদের দল থেকে সরিয়ে দেওয়া উচিত।

তাঁর বক্তব্য, ২০২২ সালে কংগ্রেসে তাঁর সমর্থক রিপাবলিকানদের সংখ্যা অনেক বাড়বে। তখন বাইডেন প্রশাসনের উপর চাপ আরো বাড়ানো হবে।

এদিন ট্রাম্পের সভায় লোক চোখে পড়ার মতো কম ছিল বলে অনেকেই দাবি করেছেন। কারণ নির্দিষ্ট সময়ের বেশ কিছুক্ষণ পরে ট্রাম্প বক্তৃতা শুরু করেন। সূত্র: রয়টার্স, এপি, এএফপি

অর্থসূচক/এএইচআর