বর্ণবাদের শিকার সিরাজ, আজীবন নিষিদ্ধ হতে পারে ৬ দর্শক

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের (এসসিজি) গ্যালারি আর বর্ণবাদী মন্তব্য যেন একে অপরের পরিপুরক হয়ে দাঁড়িয়েছে। অস্ট্রেলিয়া-ভারত ম্যাচের তৃতীয় দিনের মতো চতুর্থ দিনেও বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। যদিও এই ঘটনার পরই অভিযুক্ত ৬ দর্শককে গ্যালারি থেকে বের করে দিয়েছে নিউ সাউথ ওয়েলস পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটে চতুর্থ দিনের খেলার চা বিরতির ঠিক আগে। ফাইন লেগ অঞ্চলে দাঁড়িয়ে ফিল্ডিং করছিলেন সিরাজ। ঠিক তখনই দর্শকসারী থেকে তাঁর উদ্দেশ্যে উড়ে আসে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য। ঘটনার পরই আম্পায়ারদের কাছে বিষয়টি জানান এই বোলার। ফলে প্রায় আট মিনিটের মতো বন্ধ থাকে দিনের খেলা।

মাঠের দুই আম্পায়ার মাঠের নিরাপত্তাকর্মী ও পুলিশের সহায়তায় অভিযুক্ত দর্শকদের বের করে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। শুধু তাই নয়, এমন বৈষম্যমূলক আচরণের তীব্র নিন্দা জানিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) সততা ও নিরাপত্তা বিভাগের প্রধান শান ক্যারল বলেন, ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া সমস্ত বৈষম্যমূলক আচরণের কঠোরতম ভাষায় নিন্দা জানায়। আপনি যদি বর্ণবাদী নির্যাতনের সাথে জড়িত থাকেন তবে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে আপনাকে স্বাগত জানানো হবে না। স্বাগতিক দেশ হিসেবে আমাদের বন্ধু ভারতীয় দলের কাছে আমরা নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আর আমরা বিষয়টির যথাযথ বিচার করবো বলে কথা দিচ্ছি।’

ইন্টারন্যাশন্যাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) ইতোমধ্যেই স্পর্শকাতর এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ক্যারল বলেন, ‘সিএ আইসিসির তদন্ত প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছে। যখনই অভিযুক্তরা শনাক্ত হবে, তাদের বিপক্ষে আমরা হয়রানির আইন অনুযায়ী সম্ভাব্য সবচেয়ে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করবো। তাদেরকে লম্বা সময়ের জন্য বা আজীবন নিষিদ্ধ এবং নিউ সাউথ ওয়েলস পুলিশের হাতে সোপর্দও করতে পারি আমরা।’

ঠিক ১৩ বছর আগে এমনই এক ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল সিডনি। এসসিজিতেই ভারতের মুখোমুখি হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার। সাবেক অজি অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস সেবার হরভজনের বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ এনেছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, হরভজন তাঁকে ‘বাঁদর’ বলেছেন। এই ঘটনা পরবর্তীতে তুমুল সাড়া ফেলেছিল ক্রিকেট বিশ্বে। এমন কাণ্ডে হরভজন তিন টেস্টের জন্য নিষিদ্ধও হয়েছিলেন। যদিও পরবর্তীতে তাঁকে এই অভিযোগ থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...