মার্কিন সেনা আটকের বার্ষিকীতে ইরানের নৌমহড়া

পানিসীমা অতিক্রমের অপরাধে মার্কিন সেনাদের আটক করার পঞ্চম বার্ষিকী পালন করেছে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি। এ উপলক্ষে এই বাহিনী পারস্য উপসাগরে অবস্থিত ‘ফারসি’ দ্বীপের কাছে এক সংক্ষিপ্ত নৌমহড়া চালিয়েছে।

আইআরজিসি’র সিনিয়র কমান্ডার রামেজান জিরাহি বলেছেন, ইরানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বুশেহর প্রদেশের বিভিন্ন উপকূলীয় ঘাঁটি থেকে এসব বোট ও জাহাজ সাগর পাড়ি দিয়ে ‘ফারসি’ দ্বীপের কাছে পৌঁছায় এবং সামরিক মহড়ায় অংশ নেয়। মহড়ায় আইআরজিসি ও স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী বাসিজের অন্তত ৭০০ গানবোট ও সামরিক জাহাজ অংশ নিয়েছে।

জিহারি আরও বলেন, আইআরজিসি অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র ও যুদ্ধ উপকরণ নিয়ে যেকোনো ধরনের সামরিক সংঘাত বা যুদ্ধে জড়ানোর জন্য সর্বোচ্চ প্রস্তুতিতে রয়েছে। শত্রুর যেকোনো আগ্রাসন বা হঠকারিতার জবাব দিতে এ বাহিনী বিন্দুমাত্র দ্বিধা করবে না।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ‌১২ জানুয়ারি দু’টি গানবোটে করে ১০ মার্কিন মেরিন সেনা ইরানের পানিসীমা লঙ্ঘন করে প্রায় তিন মাইল ভেতরে ঢুকে পড়েছিল। ওই অবস্থায় আইআরজিসি’র নৌবাহিনী এসব মার্কিন সেনাকে ফারসি দ্বীপের কাছ থেকে আটক করে। তবে আইআরজিসি’র তৎকালীন নৌকমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আলী ফাদাভি তখন জানিয়েছিলেন, মার্কিন সেনাদের নেভিগেশন সিস্টেমে সমস্যা দেখা দেওয়ায় তারা দিকভুল করে ইরানের পানিসীমায় ঢুকে পড়েছিল। তার একদিন পর মার্কিন সেনাদের ছেড়ে দেয় ইরান।

অর্থসূচক/এএইচআর