সাত ঘণ্টা পর উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
192

জয়পুরহাটের পুরানাপৈলে পার্বতীপুর-রাজশাহীগামী ৩২ নম্বর উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেন দুর্ঘটনার সাত ঘণ্টা পর উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুর সোয়া ২টার দিকে চিলাহাটি- রাজশাহীগামী আন্তঃনগর বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাজশাহী অভিমুখে ছেড়ে গেছে।

এছাড়া বাকি সাতটি আন্তঃনগর ট্রেন পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন রুটে চলাচল করবে।

এর আগে সকাল সোয়া ৭টার দিকে জয়পুরহাটের পুরানাপৈলে লেবেল ক্রসিং রেলগেটে ট্রেনের ধাক্কায় যাত্রীবাহী একটি বাস চুরমার হয়ে যায়। এতে বাসের ১২ জন যাত্রীর মধ্যে ঘটনাস্থলেই ১০ জন হাসপাতালে দুই জনের মৃত্যু হয়।

পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) নাসির উদ্দিন জানান, দুর্ঘটনার কারণে পার্বতীপুর-রাজশাহীগামী ৩২ নম্বর উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনটি বিকল হয়ে গেছে। প্রধান লাইনে দুর্ঘটনা ঘটার কারণে এই রুটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগযোগ বন্ধ ছিল। ঈশ্বরদী লোকোসেড থেকে রিলিফ ট্রেনটি দুপুর ১১টা ৫৫ মিনিটে ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে।

পাকশী রেলওয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শাহীদূল ইসলাম জানান, রিলিফ ট্রেনের উদ্ধারকর্মীরা দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৪৫ মিনিটে দুর্ঘটনাকবলিত ইঞ্জিনটি উদ্ধার করে। রেললাইন সচল করে দুপুর সোয়া ২টা থেকে ট্রেনগুলো এক এক করে গন্তব্যস্থানের দিকে ছাড়া হচ্ছে। দুর্ঘটনার পর পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে ও পাকশী বিভাগীয় দফতরের স্ব-স্ব দফতরের কর্মকতা, কর্মচারীদের নিরলস পরিশ্রমের ফলে অল্প সময়ে রেললাইন ট্রেন চলাচলের উপযোগী করতে সক্ষম হয়েছি।

দুর্ঘটনায় সারা দেশের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকায় ঢাকা-খুলনা ও রাজশাহীর আটটি যাত্রীবাহী আন্তঃনগর ট্রেনের ভ্রমণপ্রিয় যাত্রীদের কিছুটা দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। যেটা অনাকাঙ্ক্ষিত! আমরা চেষ্টা করব দ্রুত নির্ধারিত সময়ে যেন ট্রেনগুলো চলাচল করে।

অর্থসূচক/এমএস