বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুর: যুবলীগ নেতাসহ ৪ জনকে ছেড়ে দিলো পুলিশ

প্রতিনিধি

0
382

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে বিপ্লবী বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক চার জনকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। তাদের কাছে কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য না পাওয়ায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আজ শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে গণমাধ্যমকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুজিবুর রহমান। তিনি জানান, তবে ওই চারজনের উপর নজরদারি রাখা হবে।

ঘটনার পর গতকাল শুক্রবার প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চারজনকে আটক করে পুলিশ। এরা হলেন- কয়া মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হারুন অর রশিদ, পরিচালনা পরিষদের সভাপতি নিজামুল হক চুন্ন, নৈশপ্রহরি খলিলুর রহমান ও কয়া ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি আনিচুর রহমান। গতরাত সাড়ে ১১টার দিকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) রাতের কোনও এক সময় উপজেলার কয়া মহাবিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে স্থাপিত বিপ্লবী বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা। ভাস্কর্যের নাক ও মুখের কিছু অংশ ভেঙে ফেলা হয়। ২০১৬ সালের ৬ ডিসেম্বর কুমারখালী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে ভাস্কর্যটি নির্মাণ করা হয়।

যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ছিলেন একজন ব্রিটিশবিরোধী বিপ্লবী বাঙালি নেতা। তিনি বাঘা যতীন নামেই সুপরিচিত। ভারতে ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র আন্দোলনে তিনি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন। বাঘা যতীন ছিলেন বাংলার প্রধান বিপ্লবী সংগঠন যুগান্তর দলের প্রধান নেতা। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ঠিক আগে কলকাতায় জার্মান যুবরাজের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে সাক্ষাৎ করে তিনি জার্মানি থেকে অস্ত্র ও রসদের প্রতিশ্রুতি অর্জন করেছিলেন।

অর্থসূচক/কেএসআর