লোকে ভুল করে এবং সেটা থেকে শিখে: কোহলি

0
237

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ২০১৮ সালে বল টেম্পারিং কাণ্ডে জড়িয়েছিলেন স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার এবং ক্যামেরন ব্যানক্রফট। এমন কাণ্ডে জড়ানোর পর বেশ কয়েকবার দর্শকদের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে তাদেরকে। বিশেষ করে বলতে গেলে সময়ের অন্যতম ব্যাটসম্যান স্মিথ।

বিশ্বকাপের মতো আসরে গিয়েও তা থেকে রক্ষা পাননি। নিজেদেরে সর্বশেষ ম্যাচে এসেও তোপের মুখে পড়েছিলেন তিনি। ভারতের বিপক্ষে সাইড লাইনে ফিল্ডিং করার সময় ভারতীয় সমর্থকরা তাকে প্রতারক! প্রতারক! বলে দুয়ো দিচ্ছিলেন। যেটা একেবারেই ভালো লাগেনি ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির।

যে কারণে সমর্থকদের দিকে এগিয়ে গিয়ে দুয়ো থামিয়ে করতালিতে স্মিথকে উৎসাহ দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। এখানেই শেষ নয়; নিজ দেশের সমর্থকদের এমন কাণ্ডে স্মিথের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেওয়ার কথা সেদিন সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন ভারতীয় এই অধিনায়ক।

সেই ঘটনা পেরিয়ে গেছে এক বছরের বেশি হলো। ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে নিজেদের সঙ্গে আলাপকালে সেদিনের ঘটনা নিয়ে কথা বলেছেন তারা দুজন। ভারতীয় সমর্থকরা স্মিথকে দুয়ো দেয়ার পর কোহলি কেন এগিয়ে এলেন এমন প্রশ্ন তো জাগতেই পারে।

গোলাপি বলের টেস্ট শুরুর আগে বিষয়টি খোলাসা করেছেন কোহলি নিজেই। তিনি বলেন, ‘ মাঠে অনেক কিছুই ঘটে এবং আপনি যখন প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকেন তখন এগুলোর সাক্ষী হবেন। আমার ক্ষেত্রেও এমনটা হয়েছে, আপনারা জানেন যে কি ঘটেছে, তুমি লম্বা সময় পর ফিরে এসেছো এর মধ্যে তোমাকে অনেক কিছু করতে হয়েছে। আমি মনে করি জীবনে এমন কিছু স্থায়ী হতে পারে না যা আপনাকে সারা জীবন বহন করে নিয়ে বেড়াতে হবে। লোকে ভুল করে এবং সেটা থেকে তারা শিখে।’

কোহলি আরও বলেন, ‘ওই মুহূর্তে আমি অনুভব করেছি যে কাউকে ব্যক্তিগতভাবে লক্ষ্য করা ঠিক না। যে কারণে আমি তাদেরকে বলেছিলাম যেন তারা তোমাকে নিরুৎসাহী না করে। এটা সহজাত ব্যাপার ছিল। আপনি যতই একে অপরের খেলেন না কেন তারপরও একটা মানবিক দিক রয়েছে। এমন অনেক উদাহরণ রয়েছে যে তুমি ব্যক্তিগতভাবে সামাল দিয়েছো। তুমি মাঠে প্রতিযোগিতামূলক কিন্তু খারাপ কিছু লাগাতে চাও না।’

অর্থসূচক/এএইচআর